পরিবেশবান্ধব নগর গড়তে বাংলাদেশের পাশে থাকবে জাতিসংঘ পরিবেশবান্ধব নগর গড়তে বাংলাদেশের পাশে থাকবে জাতিসংঘ – CTG Journal

মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১০:৪৪ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
খালেদা জিয়ার সঙ্গে মান্নার সাক্ষাৎ ২৪ ঘণ্টায় ১১টি ল্যাবে করোনা পরীক্ষা হয়নি মোবাইল ব্যাংকিংয়ে ঈদের সালামি মানিকছড়িতে রসালো ফলের বাম্পার ফলন, বাজারজাত সুবিধা না থাকায় নষ্ট হচ্ছে লিচুর বাহার যেসব অনলাইন বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে তারা রেজিস্ট্রেশন পাবে: তথ্যমন্ত্রী ভ্যাট রিটার্ন দেওয়া যাবে ৯ জুন পর্যন্ত মানিকছড়িতে ‘করোনা’ উপসর্গ নিয়ে গার্মেন্টস কর্মীর মৃত্যু স্বচ্ছতা আনতে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চালের বস্তায় স্টেনসিল কোলাহল শূন্য চট্টগ্রামের ঈদ বিনোদন কেন্দ্র কাপ্তাইয়ে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা পাচ্ছে ৬২৫০ জন ‘বারবার আমরা বলেছি, ত্রাণ দিতে হবে না ভালো একটা বাঁধ করে দেন’ একদিনে আরও ২১ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১১৬৩
পরিবেশবান্ধব নগর গড়তে বাংলাদেশের পাশে থাকবে জাতিসংঘ

পরিবেশবান্ধব নগর গড়তে বাংলাদেশের পাশে থাকবে জাতিসংঘ

পরিবেশসম্মত আধুনিক নগর গড়তে জাতিসংঘের ইউএন হ্যাবিটেট বাংলাদেশকে আর্থিক সহযোগিতাসহ সার্বিক সহযোগিতা দেবে। গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমকে এ আশ্বাস দিয়েছেন জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ও হিউম্যান সেটেলমেন্ট প্রোগ্রাম ইউএন হ্যাবিটেটের নির্বাহী পরিচালক মাইমুনাহ মোহা. শরিফ।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে চলমান ওয়ার্ল্ড আরবান ফোরামে দ্বিপক্ষীয় এক বৈঠকে তিনি এ অঙ্গীকার করেন।

বৈঠকে গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, ‘নাগরিকদের জন্য নিরাপদ, সাশ্রয়ী ও পরিবেশবান্ধব আবাসন নিশ্চিত করার মাধ্যমে টেকসই নগর ও জনপদ গড়ে তোলার জন্য বাংলাদেশ সরকার কাজ করে যাচ্ছে। টেকসই নগরায়ণের জন্য সারাদেশে মাস্টার প্ল্যান প্রণয়নের কার্যক্রম চলমান আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার একশ বছর পরের পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে। ইউএন হ্যাবিটেট বাংলাদেশের নগরায়ণ নীতিমালার উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘মিয়ানমারের জোর করে বাস্তুচ্যুত করা রোহিঙ্গা নাগরিকদের জন্য খাদ্য, চিকিৎসা, আবাসন, স্যানিটেশনের ব্যবস্থা করা বাংলাদেশের জন্য অনেক কঠিন। এজন্য রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে বিশ্ব সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসতে হবে।’

বাংলাদেশের প্রস্তাবিত ‘নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা আইন’ এবং ‘ভূমির পুনর্ব্যবহার আইন’ সমৃদ্ধ করতে কারিগরি সহায়তা দেওয়াসহ টেকসই উন্নয়ন অভীষ্টের ১১তম অভীষ্ট অর্জন ও নতুন নগর এজেন্ডার কার্যকর বাস্তবায়নে বাংলাদেশ সরকারকে ইউএন হ্যাবিটেট অব্যাহত সহযোগিতা দিতে পারে পারে বলে বৈঠকে মন্তব্য করেন গণপূর্তমন্ত্রী।

এরপর তাকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ও হিউম্যান সেটেলমেন্ট প্রোগ্রাম ইউএন হ্যাবিটেটের নির্বাহী পরিচালক মাইমুনাহ মোহা. শরিফ।

প্রসঙ্গত, ওয়ার্ল্ড আরবান ফোরামে গণপূর্তমন্ত্রী গত ৯ ফেব্রুয়ারি মন্ত্রী পর্যায়ের গোলটেবিল বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। পরে ১০ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ও ঘানার যৌথ অংশগ্রহণে একটি নেটওয়ার্কিং ইভেন্টে সভাপতিত্ব করেন। এছাড়াও ফোরামে গণপূর্তমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় করছেন।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. মো. আফজাল হোসেন, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. সাঈদ নূর আলম, নগর উন্নয়ন অধিদফতরের পরিচালক ড. খুরশীদ জাবিন হোসেন তৌফিক, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. সিদ্দিকুর রহমান ও মো. মোতাহার হোসেন, জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হারিজুর রহমান এবং প্রাক্টিক্যাল অ্যাকশন, বাংলাদেশের হেড অব প্রোগ্রাম হোসেন আদিব এ সময় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT