শিক্ষার্থীকে জিম্মি করে টাকা আদায় করল ছাত্রলীগ শিক্ষার্থীকে জিম্মি করে টাকা আদায় করল ছাত্রলীগ – CTG Journal

মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০২:৩৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে সীমান্তে বার বার বাংলাদেশী হত্যার ঘটনা ঘটছে: মন্জু নাইক্ষ্যংছড়িতে স্থল মাইন ধ্বংস করেছে সেনাবাহিনীর বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ দল ফের বাড়লো স্মারক স্বর্ণমুদ্রার দাম ক্রোড়পত্র প্রকাশে নতুন নিয়ম নাইক্ষ্যংছড়িতে শিক্ষার্থীদের মাঝে ‘বীর বাহাদুর ফাউনন্ডেশনের’ বই ও ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ আসন্ন শায়দীয় দূর্গা পূজার প্রস্তুতিতে মানিকছড়িতে মতবিনিময় সভা আওয়ামী লীগ কখনও সুষ্ঠু নির্বাচনে বিশ্বাস করে না : ডা. শাহাদাত যমুনায় দ্বিতীয় রেল সেতুর কাজ শুরু নভেম্বরে, ব্যয় বাড়লো দ্বিগুণ মিলগেটে সরবরাহ সংকট, পাইকারীতে রেডি ও ডিও ভোগ্যপণ্যের দামের বড় ফারাক! সংসদীয় গণতন্ত্রের নামে দেশে প্রাতিষ্ঠানিক স্বৈরতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে: জিএম কাদের হাটহাজারীতে সরকারি শিশু পরিবারের ২৫’শ বর্গফুট জমি উদ্ধার বেগমগঞ্জের একলাশপুরে বিভিন্ন বাহিনীর ৭ সদস্য আটক
শিক্ষার্থীকে জিম্মি করে টাকা আদায় করল ছাত্রলীগ

শিক্ষার্থীকে জিম্মি করে টাকা আদায় করল ছাত্রলীগ

সিটিজি জার্নাল নিউজঃ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি বাণিজ্যের টাকা না দেওয়ায় এক শিক্ষার্থীকে জিম্মি করে এক লাখ পঁচাত্তর হাজার টাকা আদায় করার অভিযোগ ওঠেছে ছাত্রলীগের এক নেতার বিরুদ্ধে। জিম্মি হওয়া শিক্ষার্থীর নাম মো. সাজিক খান। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় এ ঘটনা ঘটে। পরে টাকা আদায় করে দুপুর আড়াইটার দিকে সাজিককে ছেড়ে দেওয়া হয়। অন্যদিকে টাকা আদায়ে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার নাম অনিক হোসেন সাব্বির। তিনি চবি ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির উপ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র।

জানা যায়, সাজিকের গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলায়। তার বাবার মালয়েশিয়া প্রবাসী। তিনি দেড় লাখ টাকায় প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগে ভর্তির জন্য চুক্তি করেন অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার সঙ্গে। পরে মেধাক্রমে নিজের পছন্দমতো বিষয়ও পেয়ে যান এবং পরে ৫০ হাজার টাকা দেন। গতকাল ২৫ হাজার টাকা দিয়ে আর দেবে না বললে তাঁকে জিম্মি করে আবার পরিবার সদস্যদের কাছ থেকে এক লাখ টাকা আদায় করেন। তিন দফায় এক লাখ ৭৫ হাজার টাকা আদায় করে ছাত্রলীগ নেতা।

টাকা আদায়ের দাবির বিষয়টি নিশ্চিত করে জিম্মি শিক্ষার্থী সাজিকের মা জহুরা বেগম বলেন, প্রাণ রসায়ন ও অণুপ্রাণবিজ্ঞান বিষয়টি দেবে বলে দেড় লাখ টাকা চুক্তি করা হয়েছিল। তবে বিষয়টি এমনিতে আসছে। তারপরও আমি তাঁদেরকে প্রথমে ৫০ হাজার টাকা দিয়েছি। আজ (বৃহস্পতিবার) আবার ২৫ হাজার টাকা নিয়ে গেছে। আমার ছেলে আর আমি ওদেরকে বলেছি আমারে মাফ করে দাও বাজান! আমি গরিব মানুষ আমি আর টাকা পয়সা দিতে পারব না। ওরা পরে ফোন দিয়ে বলছে আরো ২ লাখ ২৫ হাজার টাকা না দিলে আপনার ছেলেকে পাবেন না। জানে মেরে ফেলব। এ কথা শুনে দুপুরে রকেটের (অনলাইনে টাকা পাঠানোর মাধ্যম) মাধ্যমে আমি তাদেরকে আবার ১ লাখ টাকা দিয়েছি। পরে আমার ছেলেকে ছেড়ে দেন।

ছেড়ে দেওয়ার পর এ ব্যাপারে সাজিকের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, তাদের কথামতো টাকা দিয়ে দিয়েছি। এখন কোনো গণমাধ্যমে বিষয়টি আসুক আমি চাই না। এটা আমার জন্য অপমানজনক। এ কথা বলে তিনি আর কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে চাননি।

অন্যদিকে অভিযুক্ত অনিক হোসেন সাব্বিরকে ফোন দিলে ফোন রিসিভ করে কথা না বলে কেটে দিয়ে ফোন বন্ধ করে রাখেন।

সাব্বির আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও চবি ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সহ সভাপতি রেজাউল হক রুবেলের অনুসারী হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।

এ বিষয়ে চবি ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির সহ সভাপতি রেজাউল হক রুবেল বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে নওফেল ভাইয়ের গ্রুপ কোনোভাবে কোনো অন্যায়ের দায়ভার নেবে না। যে বা যারা অন্যায় করবে তারা অন্যায়কারী। তাদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী বলেন, আমিও বিষয়টি শুনেছি এবং পুলিশ প্রশাসনকে জানিয়েছি-যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

একে/এম

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT