নেতানিয়াহুকে বিচারের মুখোমুখি করার সুপারিশ ইসরায়েলি পুলিশের নেতানিয়াহুকে বিচারের মুখোমুখি করার সুপারিশ ইসরায়েলি পুলিশের – CTG Journal

শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৩:২৪ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
মিয়ানমারের বিরুদ্ধে ৫০০ পৃষ্ঠার নথি জমা দিলো গাম্বিয়া সীমান্তে স্থলমাইন বিস্ফোরণে রোহিঙ্গা যুবক নিহত রায়হান হত্যাকাণ্ড: আরও এক পুলিশ সদস্য গ্রেফতার অ্যাটর্নি জেনারেল হয়েও বেতন নিতেন না রফিক উল হক আগুনমুখা নদীতে নিখোঁজ ৫ জনের লাশ উদ্ধার শুক্রবার চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত ৮১ সুশাসন প্রতিষ্ঠায় ব্যারিস্টার রফিক উল হকের অবদান অনস্বীকার্য স্থল নিম্নচাপ দেশের মধ্যাঞ্চলে, আজও হতে পারে ভারী বৃষ্টি ব্যারিস্টার রফিক উল হক আর নেই আকবরশাহ’তে ছুরি চাপাতিসহ ২ যুবক গ্রেফতার ফেনীতে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ১ মানিকছড়ি পূজামন্ডবে দুশতাধিক গরীব দুঃস্থর মাঝে বস্ত্র বিতরণ
নেতানিয়াহুকে বিচারের মুখোমুখি করার সুপারিশ ইসরায়েলি পুলিশের

নেতানিয়াহুকে বিচারের মুখোমুখি করার সুপারিশ ইসরায়েলি পুলিশের

ঘুষ, জালিয়াতি এবং আস্থা ভঙ্গের দায়ে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযুক্ত করার সুপারিশ করেছে দেশটির পুলিশ। দুটি দুর্নীতির মামলায় নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে কয়েক মাস ধরে তদন্ত চালানোর পর মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) এ সুপারিশ করা হয়। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, সুপারিশটি এখন অ্যাটর্নি জেনারেল বরাবর পাঠানো হবে। তিনিই সিদ্ধান্ত নেবেন নেতানিয়াহুকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে কি হবে না। তবে পুলিশের ওই সুপারিশে শেষ পর্যন্ত ‘কিছুই হবে না’ বলে দাবি করেছেন নেতানিয়াহু।

কয়েক মাস ধরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে দুটি দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত করছিল সে দেশের পুলিশ। তার বিরুদ্ধে একজন ধনাঢ্য ব্যবসায়ীর কাছ থেকে উপহার নেওয়া এবং একটি সংবাদমাধ্যমের মালিককে ঘুষ দিয়ে ইতিবাচক সংবাদ প্রকাশের চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে। মঙ্গলবার ইসরায়েল পুলিশ তদন্ত শেষে তাদের সুপারিশ প্রদান করে।

কেস ১০০০ নামের প্রথম তদন্তে বলা হয়, নেতানিয়াহু রাজনৈতিক সুবিধা প্রদানের বিনিময়ে ধনাঢ্য ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে উপহার নিয়েছিলেন। পুলিশকে উদ্ধৃত করে ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যম হারেৎজ জানায়, ২ লাখ ৮০ হাজার ডলার মূল্যের উপহার সামগ্রী গ্রহণ করেছেন নেতানিয়াহু। কেস ২০০০ নামে দ্বিতীয় তদন্তে বলা হয়, তেলআবিবের একটি পত্রিকার প্রকাশক আরনোন মোজেসকে ঘুষ দিয়ে ইতিবাচক সংবাদ প্রকাশের চেষ্টা করেছেন তিনি। ইসরায়েলি সংবাদপত্র ইয়েদিয়থ আহরনোথে নিজের পক্ষে ইতিবাচক সংবাদ প্রকাশের জন্য একটি চুক্তি করার চেষ্টা করেছিলেন নেতানিয়াহু। এর বিনিময়ে সংবাদপত্রটির প্রতিদ্বন্দ্বী পক্ষ ইসরায়েল হায়োমকে কোণঠাসা করতে সহায়তা করবেন বলে প্রস্তাব দিয়েছিলেন তিনি।

ইসরায়েল পুলিশের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ওঠা ঘুষ, জালিয়াতি ও আস্থা ভঙ্গের অভিযোগগুলোর পক্ষে যথেষ্ট প্রমাণ আছে।’

নিজস্ব প্রতিনিধিকে উদ্ধৃত করে আল জাজিরা জানায়, নেতানিয়াহুকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে কিনা সে সিদ্ধান্ত জানার জন্য সুপারিশগুলো অ্যাটর্নি জেনারেল বরাবর পাঠানো হবে।

শুরু থেকেই নেতানিয়াহু তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। মঙ্গলবারও একই অবস্থানে অনড় থাকতে দেখা গেল তাকে। এদিন টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারিত ভাষণে নেতানিয়াহু বলেন, তিনি ক্ষমতায় থাকতে চান এবং পুলিশের সুপারিশে ‘কিছুই হবে না’। নেতানিয়াহু বলেন, ‘আমি যা করেছি তা ইসরায়েল রাষ্ট্রের ভালোর জন্যই করেছি। এখন পর্যন্ত আমি তা করে যাচ্ছি এবং করে যাব।’

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT