খালেদা জিয়াকে ছাড়া আগামী নির্বাচনে যাবে না বিএনপি: মির্জা ফখরুল খালেদা জিয়াকে ছাড়া আগামী নির্বাচনে যাবে না বিএনপি: মির্জা ফখরুল – CTG Journal

শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০১:৩৬ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
পুলিশ হেফাজতে নির্যাতন ও মৃত্যু: কী ভাবছেন শীর্ষ কর্মকর্তারা? সমুদ্রবন্দরে ৪ নম্বর সতর্ক সংকেত সিএমপির বন্দরের ডিসিকে বদলি মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের লেনদেন এক সপ্তাহ বন্ধ থাকবে মানিকছড়িতে পুলিশের পক্ষ থেকে পুজা মন্ডবে মাক্স বিতরণ হালদার উজান মানিকছড়িতে তামাকের বদলে ফলজ বনজ ও নানা প্রজাতির মিশ্র চাষাবাদে ঝুঁকছে কৃষিজীবিরা নৌ ধর্মঘট প্রত্যাহার জাজিরা এয়ারওয়েজের ফ্লাইটে কুয়েত প্রবাসীর মৃত্যু, সন্ধান মেলেনি পরিবারের বৈরী আবহাওয়ায় সেন্টমার্টিনে আবারও আটকা দু’শতাধিক পর্যটক কুষ্টিয়ায় ২২ দিনে ধর্ষণের অভিযোগে ৮ মামলা মেশিন ছুঁলেই ৪২ পরীক্ষার রিপোর্ট: চিকিৎসার নামে অভিনব প্রতারণা, ভুয়া ডাক্তার গ্রেপ্তার অন্তঃসত্ত্বা নারীকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ, গ্রেফতার ৩
খালেদা জিয়াকে ছাড়া আগামী নির্বাচনে যাবে না বিএনপি: মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়াকে ছাড়া আগামী নির্বাচনে যাবে না বিএনপি: মির্জা ফখরুল

সিটিজি জার্নাল নিউজঃ বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, যতক্ষণ পর্যন্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে মুক্ত করা না যাবে ততক্ষণ পর্যন্ত গণতান্ত্রিক আন্দোলন থামানো যাবে না। তিনি আরও বলেছেন, খালেদা জিয়াকে ছাড়া আগামী নির্বাচনে যাবে না বিএনপি।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে রাখা বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। দুর্নীতির মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল ১১টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে দলটির হাজারখানেক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে দেশে কোনও নির্বাচন হবে না, হতে দেওয়া হবে না। খালেদা জিয়াকে ছাড়া আগামী নির্বাচনে যাবে না বিএনপি। তাঁর (খালেদা জিয়া) নেতৃত্বে আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি।

তিনি আরও বলেন, শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা হবে।

সরকারের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল বলেন, আগামীতে সহায়ক সরকারের অধীনে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে হবে। অনতিবিলম্বে খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই, মুক্তি দিতে হবে।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, মোহাম্মদ শাহজাহান, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, ডা. এজেএম জাহিদ হোসেন, বরকতউল্লাহ বুলু, আবদুল আউয়াল মিন্টু, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম, ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, অধ্যাপক ডা. রফিকুল কবির লাবু, জয়নাল আবদীন ফারুক, হাবিবুর রহমান হাবিব, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ফজলুল হক মিলন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, আমিনুল হক, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, মুহাম্মদ আবদুল আউয়াল খান, ড. মোর্শেদ হাসান খান, শহীদুল ইসলাম বাবুল, হারুনুর রশিদ, শামীমুর রহমান শামীম, কাদের গণি চৌধুরী, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ,  ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার,  যুবদলের সাইফুল আলম নীরব, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের শফিউল বারী বাবু, সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান, শামসুদ্দিন দিদার প্রমুখ।

এদিকে ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতারাও মানববন্ধনে অংশ নেন। তাদের মধ্যে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান  সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিম, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, এনপিপি চেয়ারম্যান ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া মানববন্ধনে অংশ নেন।

পূর্বঘোষিত মানববন্ধনে বিএনপি ছাড়া বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন, ২০ দলীয় জোট, পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা অংশগ্রহণ করেন।

একে/এম

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT