বনভূমি উজার করে পাচার হচ্ছে গাছ বনভূমি উজার করে পাচার হচ্ছে গাছ – CTG Journal

শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৭:০৭ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
আকবরশাহ’তে ছুরি চাপাতিসহ ২ যুবক গ্রেফতার ফেনীতে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ১ মানিকছড়ি পূজামন্ডবে দুশতাধিক গরীব দুঃস্থর মাঝে বস্ত্র বিতরণ নিম্নচাপ উপকূল অতিক্রম করেছে, সকালে আবহাওয়ার উন্নতি হতে পারে ফাঁদে ফেলে ১৩ বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগ জেলা পরিষদের শিক্ষাবৃত্তি পেল ৩২৪ শিক্ষার্থী সংকটাপন্ন অবস্থাতেই ব্যারিস্টার রফিক উল হক সাজেক মসজিদ-রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের একটি জনবান্ধব প্রকল্প ডায়াবেটিস আক্রান্তদের করোনার ঝুঁকি! সিনহা হত্যা মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি হবে: র‌্যাব ডিজি হাতিয়ার সঙ্গে সারাদেশের নৌ যোগাযোগ বন্ধ নিরাপদে আছেন সেন্টমার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকরা
বনভূমি উজার করে পাচার হচ্ছে গাছ

বনভূমি উজার করে পাচার হচ্ছে গাছ

মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান অলি, খাগড়াছড়িঃ জেলার পানছড়ি তেমন রিজার্ভ বনভূমি না থাকা সত্বেও খাস ও ব্যক্তি মালিকাধীন পাহড়ের গাছ কেটে উজার হচ্ছে বনভূমি।

স্থানীয়দের অভিযোগ একশ্রেণীর বনখেকো প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও স্থানীয় প্রভাবশালী নেতাদর সহয়োগীতায় কঁচি গাছ থেকে শুরু করে সকল গাছ কেটে বিক্রি হয়। প্রসাশনের সামনেই এ সকল কচি গাছ ইট ভাটায় পোড়ানো হয় ও চিড়ানো উপযুক্ত গাছ ঢাকা- চট্টগ্রাম চালান দেওয়া হয়। গত ৩১/১/১৮ বুধবার কানুনগো পাড়া থেকে ৩৫০ ঘনফুট চম্পাফুল গাছ, ১০/০২/১৮ শনিবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে মোল্লাপাড়া এলাকায় ১০ টুকরা চাঁপা ফুলের (চম্পাফুল) গোল কাঠ জব্দ করেছে বিজিবি।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৩ বিজিবি’র নায়েক সুবেদার মোঃ আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে ৯জন বিজিব সদস্য পানছড়ি সদর ইউনিয়নের কানুনগোপাড়া ও উল্টাছড়ি ইউনিয়নের মোল্লাপাড়া এলাকায় রাস্তার পাশে পরিত্যক্ত অবস্থায় এ কাঠ জব্দ করে। পানছড়ি উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা মোঃ জহিরুল ইসলাম সত্যতা স্বীকার করে বলেন, চাঁপা ফুলের গোল কাঠ দুই দিনে প্রায় ৩৪৫ ঘনফুট হবে এবং যার বাজার মূল্য প্রায় দশ লাখ টাকা।

তবে ইট ভাটার গাছ পোড়ানো নিয়ে তিনি উর্ধ¦তন কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন বলে জানান। ৩ বিজিবি জব্দ করা গাছ কে বা কাহারা এনেছিল তা এখনও পাই নাই। ফরেস্টার শেখ ইয়াকুব বলেন চাঁপা ফুল গাছ কর্তন করা নিষেধ। পাঁচার করা জন্য এসব কাঠ কর্তন করা হয় ।

সচেতন মহলের ধারণা, এমনি ভাবে গাছ কেঁটে বন উজার করলে পরিবেশের ব্যাপক বিপর্যয় ঘটবে। তাই পাহাড় মরুভূমি হওয়ার আগেই উর্ধ¦তন কর্তৃপক্ষ সু-নজর দিলে পাহাড় ধ্বস ও পরিবেশ বিপর্যয় থেকে খাগড়াছড়িবাসী রক্ষা পাবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT