‘কৃষকদের ৪০ কোটি টাকার বীজ ও সার দেবে সরকার’ ‘কৃষকদের ৪০ কোটি টাকার বীজ ও সার দেবে সরকার’ – CTG Journal

শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৯ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
শুক্রবার চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত ৮১ সুশাসন প্রতিষ্ঠায় ব্যারিস্টার রফিক উল হকের অবদান অনস্বীকার্য স্থল নিম্নচাপ দেশের মধ্যাঞ্চলে, আজও হতে পারে ভারী বৃষ্টি ব্যারিস্টার রফিক উল হক আর নেই আকবরশাহ’তে ছুরি চাপাতিসহ ২ যুবক গ্রেফতার ফেনীতে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ১ মানিকছড়ি পূজামন্ডবে দুশতাধিক গরীব দুঃস্থর মাঝে বস্ত্র বিতরণ নিম্নচাপ উপকূল অতিক্রম করেছে, সকালে আবহাওয়ার উন্নতি হতে পারে ফাঁদে ফেলে ১৩ বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগ জেলা পরিষদের শিক্ষাবৃত্তি পেল ৩২৪ শিক্ষার্থী সংকটাপন্ন অবস্থাতেই ব্যারিস্টার রফিক উল হক সাজেক মসজিদ-রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের একটি জনবান্ধব প্রকল্প
‘কৃষকদের ৪০ কোটি টাকার বীজ ও সার দেবে সরকার’

‘কৃষকদের ৪০ কোটি টাকার বীজ ও সার দেবে সরকার’

সিটিজি জার্নাল নিউজঃ কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, আউশ ধানের উৎপাদন বাড়াতে দেশের ২ লাখ ৩৭ হাজার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষককে বিনামূল্যে ৪০ কোটি টাকার বীজ ও রাসায়নিক সার দেবে সরকার।

আজ বুধবার দুপুরে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এ কথা জানান।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের ৬৪ জেলার কৃষকদের উফশী আউশের জন্য ৩২ কোটি ৩৩ লাখ ৫৩ হাজার ১৭০ টাকা এবং ৪০ জেলার কৃষকদের নেরিকা আউশ আবাদে সাত কোটি ২৯ লাখ ৩০ হাজার ৭৫ টাকা বীজ ও সার বিতরণ করা হবে।

তিনি বলেন, এসব বীজ ও সার বিতরণে মোট খরচ হবে ৩৯ কোটি ৬২ লাখ ৮৩ হাজার ২৪৫ টাকা। এই প্রণোদনার ফলে দুই লাখ ৩৭ হাজার ১৮২ বিঘা জমিতে আউশ ধান চাষ করা যাবে।

কৃষিমন্ত্রী জানান, উফশী ধানের ক্ষেত্রে এক বিঘা জমির জন্য পাঁচ কেজি ধান বীজ, ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি ডিএপি এবং ১০ কেজি এমওপি সার সহায়তা দেওয়া হবে। এতে বিঘাপ্রতি ব্যয় হবে এক হাজার ৫৯৭ টাকা ৫০ পয়সা।

তিনি জানান, নেরিকা আউশ ধান চাষে একজন কৃষককে এক বিঘা জমির জন্য পাঁচ কেজি ধান বীজ, ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি ডিএপি এবং ১০ কেজি এমওপি সার এবং সেচ খরচ বাবদ ৫০০ টাকা ও আগাছা দমনের জন্য আরো ৫০০ টাকা পাবেন। এতে বিঘাপ্রতি ব্যয় হবে দুই হাজার ১১৫ টাকা।

এ বছরের মার্চের শেষ দিকে প্রণোদনার এই অর্থ ছাড় করা হবে জানিয়ে মতিয়া চৌধুরী বলেন, এ সংক্রান্ত সরকারের কমিটি সুবিধাভোগী কৃষকদের তালিকা চূড়ান্ত করবে। কেউ একা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবে না।

সংবাদ সাম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী জানান, এ মৌসুমে মোট ২ লাখ ৩৭ হাজার ১৮২ বিঘা জমিতে আউশ ধান চাষ করা হবে। প্রণোদনা কার্যক্রমের আওতায় বিনামূল্যে বীজ, রাসায়নিক সার ও কৃষি উপকরণ সহায়তা দেওয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী বলেন, গত বছর বোরো উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে না পারলেও আউশ ধান উৎপাদনে সেই ঘাটতি অনেকটা পুষিয়ে দিয়েছি। এ বছর ৫ লাখ মেট্রিক টন অতিরিক্ত আউশ ধান উৎপাদিত হয়েছে।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, হাওর অঞ্চলে আগাম বন্যা এবং পরে দেশের ৫৩ জেলায় বন্যার কারণে বোরো উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ব্যাহত হয়েছে। এ বছর বোরো উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা এক কোটি ৯০ লাখ মেট্রিক টন নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মঈন উদ্দিন আব্দুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

একে/এম

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT