জেলা প্রশাসকের সাথে প্রতারণা করতে গিয়ে প্রতারকের কারাদণ্ড জেলা প্রশাসকের সাথে প্রতারণা করতে গিয়ে প্রতারকের কারাদণ্ড – CTG Journal

শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৪২ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
কোভিড-১৯: একদিনে আরও ১৪ জনের মৃত্যু টানা বৃষ্টিতে ভারী বর্ষণ, প্রস্তুত ১৫ আশ্রয়কেন্দ্র নিম্নচাপ: উপকূলে ঝড়ো হাওয়া, নৌযান চলাচল বন্ধ, আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়ার বিষয়ে চীনকে আবারও আশ্বস্ত করল মিয়ানমার ভাষাশিক্ষা ও বানানে নৈরাজ্য খাগড়াছড়িতে নিরাপদ খাদ্য আইনে প্রথম সাজা বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত ৯৪ উপকূল অতিক্রম করছে গভীর নিম্নচাপ, জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্রপরিষদ’র কমিটি গঠণ: সভাপতি সাকিব, সেক্রেটারি আসাদ পুলিশ হেফাজতে নির্যাতন ও মৃত্যু: কী ভাবছেন শীর্ষ কর্মকর্তারা? সমুদ্রবন্দরে ৪ নম্বর সতর্ক সংকেত সিএমপির বন্দরের ডিসিকে বদলি
জেলা প্রশাসকের সাথে প্রতারণা করতে গিয়ে প্রতারকের কারাদণ্ড

জেলা প্রশাসকের সাথে প্রতারণা করতে গিয়ে প্রতারকের কারাদণ্ড

সিটিজি জার্নাল নিউজঃ পর্যটক হিসাবে গত ৪ মাসে বিভিন্ন জেলার জেলা প্রশাসকসহ ৮২ জন সরকারি কর্মকর্তার কাছ থেকে প্রত্যয়ন ও আর্থিক সহায়তা নিয়েছে মিজানুর। আজ রবিবার দুপুরে সে মাগুরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এসেছিল একই রকম প্রত্যয়ন ও আর্থিক সহায়তা নিতে। কিন্তু তার অসংলগ্ন কথাবার্তা ও সন্দেহজনক কাগজপত্রে পর্যটকের বদলে প্রতারক হিসাবে প্রমান পান জেলা প্রশাসক আতিকুর রহমান।

এ কারণে নির্বাহী ম্যাচিজস্ট্রেট খোরশেদ আলমের নেতৃত্বে গঠিত ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাকে ৭ দিনের কারাদণ্ড দেয়ার আদেশ দেয়া হয়েছে। মিজানুর সাতক্ষীরা জেলার সেনেরগাতি গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে। আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মাগুরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ঘটেছে এ ঘটনা।

ভ্রাম্যমা আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোরশেদ আলম চৌধুরী জানান, মিজানুর রহামনের কাছ থেকে বিভিন্ন জেলা প্রশাসক সহ উচ্চ পদস্থ কর্মকতাদের সাড়্গর ও সীলমহর সম্বলিত কাগজপত্র পাওয়া গেছে। যেগুলো দেখিয়ে বিভিন্ন জেলায় সে নিজেকে পর্যটক দাবী করে আর্থিক সহযোগিতা নিত। যা প্রকৃত অর্থে প্রতারনা।

একে/এম

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT