হাটহাজারী পৌরসভার দেওয়ান নগরে জমিরিয়া ইসলামীয়া মাদরাসা সন্ত্রাসী হামলা ও ভাংচুর হাটহাজারী পৌরসভার দেওয়ান নগরে জমিরিয়া ইসলামীয়া মাদরাসা সন্ত্রাসী হামলা ও ভাংচুর – CTG Journal

বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৩:৩২ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
সমুদ্র নিরাপত্তা জোটের বৈঠকে অংশ নেয়নি বাংলাদেশ পানছড়িতে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শত বার্ষিকী উপলক্ষে সংবর্ধনা ও পুরষ্কার বিতরণী সভা অনুষ্ঠিত মাস্ক নিয়ে কঠোর প্রশাসন, ৩২ মামলায় ৩২ জনকে জরিমানা চট্টগ্রাম দাপাবে চার পেট্রোল কার গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি নেবে ১৯ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ইন্টারনেট সুবিধা বাড়াতে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার নাইক্ষ্যংছড়িতে ২দিন ব্যাপী নিউট্রিশন সেনসেটিভ প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ শুরু পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২৩ বছর, বাংলাদেশের সংবিধানের সাথে সাংঘর্ষিক ও বৈষম্য মূলক ধারা গুলো সংশোধন করে চুক্তির পূনঃমূল্যায়ন করার দাবি পরীক্ষার তারিখ না দিলে আমরণ অনশন ৯ মাস পর মিরপুরে মাশরাফি হলমার্কের অর্থ কেলেঙ্কারি: দুদকের ফের অনুসন্ধান শুরু লামায় স্বাস্থ্য কর্মীদের কর্মবিরতিতে ব্যহত হচ্ছে স্বাস্থ্য সেবা
হাটহাজারী পৌরসভার দেওয়ান নগরে জমিরিয়া ইসলামীয়া মাদরাসা সন্ত্রাসী হামলা ও ভাংচুর

হাটহাজারী পৌরসভার দেওয়ান নগরে জমিরিয়া ইসলামীয়া মাদরাসা সন্ত্রাসী হামলা ও ভাংচুর

খোরশেদ আলম শিমুল, হাটহাজারীঃ হাটহাজারী পৌরসভার পশ্চিমে পাহাড়ি এলাকার দেওয়াননগর গ্রামের জমিরিয়া ইসলামীয়া মাদরাসা হেফজখানা ও এতিমখানায় একদল যুবক হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করেছে বলে জানা যায়।

শনিবার সকাল আটটায় প্রকাশ্য দিবালোকে প্রায় ২০-২৫ জন যুবক ধারালো কিরিচ ও দেশীয় অস্ত্র সহকারে এই হামলা চালিয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে।খবর পেয়ে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আকতার উননেছা শিউলী এবং হাটহাজারী মডেল থানার এএসআই আরিফ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মাদ্রাসার সেক্রেটারী মমতাজ মিয়া জানান,প্রতিদিনের মত মাদ্রাসার হেফজবিভাগ সহ অন্যান্য বিভাগের নিয়মিত পাঠদান চলছিল। সকাল আটটার দিকে ২০-২৫ জন্য যুবক লোহার রড,ধারালো কিরিচ ও অন্যান্য দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মাদ্রাসায় হামলা চালায়। তারা প্রথমে এসে মাদ্রাসা শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ভয় ভীতি দেখিয়ে তাদের কাছ থেকে মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। এরপর তারা মাদ্রাসার নতুন নির্মিত হেফজবিভাগের একটি টিন নির্মিত ঘর সর্ম্পূন কুপিয়ে ভেঙ্গে ফেলে।এসময় তারা হেফজবিভাগের ঐ কক্ষে রক্ষিত কিতাব ও অন্যান্য আসবাব পত্র ভাংচুর ও তছনছ করে চলে যায়।

মাদ্রাসার পরিচালক জমির উদ্দীন সহ অন্যান্য শিক্ষক ও ছাত্রদের জিম্মি করে রাখে এবং সকলের মোবাইল কেড়ে নেয়। এরপর তারা মাদ্রাসার নতুন নির্মিত হেফজবিভাগের একটি টিন নির্মিত ঘর সর্ম্পূন কুপিয়ে ভেঙ্গে চুরমার করে ফেলে। এসময় তারা হেফজবিভাগের ঐ কক্ষে রক্ষিত কিতাব ও অন্যান্য আসবাব পত্র ভাংচুর ও তছনছ করে চলে যায়।তিনি আরো বলেন, হামলাকারীদের বেশ কয়েকজনকে আমি চিনতে পেরেছি। তারা সম্প্রতি সরকারী জমির উপর নির্মিত এই মাদ্রাসার জমি নিজেদের জমি দাবী করে আসছিল। এটা নিয়ে থানায় ও ইউএনওর কার্যালয়ে একাধিকবার বৈঠক করা হলেও তারা সেখানে তাদের দাবী প্রমাণ করতে না পেরে এ হামলা চালিয়েছে। হামলায় প্রায় ৬-৭ লক্ষ টাকার মালামাল ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।

এব্যাপারে হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বেলাল উদ্দীন জাহাঙ্গীর জানান,মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ মামলা দায়ের করলে তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের জানান, মাদ্রাসাটি সরকারী খাস জমির উপর নির্মিত। আমি মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষকে বলেছি তারা আবেদন করলে মাদ্রাসার জমিটি মাদ্রাসার নামে বন্দোবস্ত প্রদাণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT