মুক্তিপণ দাও, নইলে ৪ কৃষককে হত্যা অপহরণকারীদের হুমকি মুক্তিপণ দাও, নইলে ৪ কৃষককে হত্যা অপহরণকারীদের হুমকি – CTG Journal

বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৪:৩০ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বাড়ি নির্মাণের অভিজ্ঞতা নিতে ১৬ কর্মকর্তার বিদেশ সফরের প্রস্তাব করোনাকালে চলছে কোচিং সেন্টার, বন্ধ করল প্রশাসন করোনার পরও লটারিতে ভর্তি চলবে: শিক্ষামন্ত্রী ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিঃ এর উদ্যোগে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় সি.আর.এম উদ্বোধন সাংবাদিক কনক সারওয়ার ও ইলিয়াসসহ ৩৫ জনের ব্যাংক হিসাব তলব প্রায় ৭ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন পাচ্ছে বাংলাদেশ লামা সদর ইউনিয়ন আ.লীগের নতুন সভাপতি জহির, সম্পাদক ক্যাম্রাচিং ও সাংগঠনিক মানিক বড়ুয়া করোনায় একদিনে আরও ৩৯ জনের মৃত্যু পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র সচিব করোনায় আক্রান্ত কেডিএস আক্রোশ থেকে এক অসহায় পরিবারের বাঁচার আকুতি সিঙ্গাপুরে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে বাংলাদেশি গ্রেফতার পিছিয়ে যাচ্ছে ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা
মুক্তিপণ দাও, নইলে ৪ কৃষককে হত্যা অপহরণকারীদের হুমকি

মুক্তিপণ দাও, নইলে ৪ কৃষককে হত্যা অপহরণকারীদের হুমকি

সিটিজি জার্নাল নিউজঃ ‘মুক্তিপণ দাও, নইলে ৪ কৃষককে হত্যা করা হবে।’ বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে গত শনিবার অপহৃত ৪ জন কৃষকের পরিবারকে এমন হুমকি দিয়েছে অপহরণকারীরা। এ নিয়ে তারা আতংক, উৎকণ্ঠায় আছেন।

জানা যায়, গত শনিবার ভোর রাত ৪টার দিকে ১০–১২ জনের এক দল সশস্ত্র সন্ত্রাসী রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের আব্দুল আজিজ (১৬), আব্দুর রহিম (২৫), শাহ আলম (৪০) ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাঁকখালী মৌজার আবু ছৈয়দকে (৪২) অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে গহীন পাহাড়ে নিয়ে যায়। নেওয়ার ১৬ ঘণ্টা পর অপহৃতদের মোবাইল ফোন থেকে জনপ্রতি ২ লাখ টাকা করে ৮ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে আসছে সন্ত্রাসীরা। মুক্তিপণের টাকা দিতে না পারায় এখনো পর্যন্ত তারা সন্ত্রাসীদের হাত থেকে মুক্ত হতে পারেননি বলে জানান অপহৃত আব্দুল আজিজের পিতা নুরুল আলম। অপহৃত অন্য পরিবারের সদস্যরা জানান, সময়মতো টাকা পরিশোধ করতে না পারলে তাদের হত্যা করা হবে বলে মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়ে আসছে সন্ত্রাসীরা। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলেও সন্ত্রাসীরা জানিয়েছে, মুক্তিপণ দিতেই হবে। নইলে ৪ কৃষককে হত্যা শীঘ্রই করা হবে।

অপহরণের পর থেকে পুলিশ ও বিজিবি পাহাড়ের সম্ভাব্য স্থানে অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু এখনো অপহৃতদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর শেখ বলেন, অপহরণের পর থেকে পুলিশের পাশাপাশি বিজিবিসহ অন্যান্য আইন–শৃঙ্খলা বাহিনী অপহৃতদের উদ্ধারে দুর্গম পাহাড়ে অভিযান পরিচালনা করে আসছে। তিনি বলেন, অপহৃতরা উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, ২ মাস আগেও একই ইউনিয়নের ছাগলখাইয়ায় নিজ বাড়ি থেকে থেকে তিন কৃষককে অপহরণ করে সন্ত্রাসীরা। ৯ দিন পর মুক্তিপণের বিনিময়ে তাদের ছেড়ে দেয়। এর আগে ওই ইউনিয়ন থেকে দুই ডজনের বেশি লোককে অপহরণ করেছিল সন্ত্রাসীরা। মুক্তিপণ ছাড়া এ পর্যন্ত কাউকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি বলে জানান স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল জব্বার।

এলাকার লোকজন জানান, বুধবারের মধ্যে ৪ কৃষককে মুক্তিপণের মাধ্যমে ছাড়িয়ে আনার চেষ্টা চলছে। অপহৃতদের উদ্ধারে আরো তৎপর হতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

একে/এম

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT