ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা টানা অনশনে অসুস্থ ১৭৮ জন শিক্ষক ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা টানা অনশনে অসুস্থ ১৭৮ জন শিক্ষক – CTG Journal

রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৫০ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং পরীক্ষার নম্বর ও সময় কমলো ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ বঙ্গবন্ধুর নামে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ সিরিজ লামা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জহিরুল ইসলাম বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত খাগড়াছড়ি পৌরসভার নতুন মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী ভারতীয় পেঁয়াজ কিনছে না ক্রেতা, বিপাকে ব্যবসায়ীরা বিপুল ব্যবধানে জিতলেন ওবায়দুল কাদেরের ভাই ভ্যাকসিনে অনাগ্রহী ৪২ শতাংশ ব্রিটিশ বাংলাদেশি লামায় শান্তিপুর্ণভাবে পৌরসভা নির্বাচন সম্পন্ন : চলছে গননা একনজরে অর্থনীতির ৫০, দক্ষিণ এশিয়ার উদীয়মান সূর্য আমরা ‘টাকা ভাংতি নেই’ বলায় দোকান ভাংচুর, ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার পিকে হালদার কাণ্ডে জড়িত ৮৩ জনের তালিকা হাইকোর্টে
ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা টানা অনশনে অসুস্থ ১৭৮ জন শিক্ষক

ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা টানা অনশনে অসুস্থ ১৭৮ জন শিক্ষক

সিটিজি জার্নাল নিউজঃ তীব্র শীতকে উপেক্ষা করে জাতীয়করণের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচির পর আমরণ অনশন করছেন বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা। টানা অনশনে এ পর্যন্ত ১৭৮ জন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলে জানা গেছে।

আজ সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়করণে দাবিতে আমরণ অনশন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসার শিক্ষক নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা যায়। বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির ব্যানারে গত ১৫ দিন ধরে অবস্থান ও সাতদিন ধরে আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করছেন শিক্ষকরা।

প্রথমে গত ১ জানুয়ারি থেকে ৮ জানুয়ারি পর্যন্ত তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। এতে সরকারের কাছ থেকে সাড়া না পেয়ে ৯ জানুয়ারি থেকে আমরণ অনশন শুরু করেন। টানা ৭ দিন ধরে আমরণ অনশন এবং তীব্র শীতের কারণে অধিকাংশ শিক্ষক শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে গেছেন। এর মধ্যে ১৭৮ জন শিক্ষককে অসুস্থ হওয়ায় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া গুরুতর হওয়ায় কয়েকজনকে মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. রুহুল আমিন বলেন, আমার ধারণা, এখানে আমরা যারা অনশন করছি, সবাই মাদরাসা শিক্ষক। এজন্য অবহেলার শিকার হচ্ছি। আমরা আশা করি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের কষ্ট উপলব্ধি করবেন এবং জাতীয়করণের ব্যবস্থা করবেন।

আমির হোসেন নামে এক শিক্ষক বলেন, বেতন-ভাতা না পেয়ে ইবতেদায়ি শিক্ষকেরা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। বেতনহীন চাকরিতে জীবন চালাতে হিমশিম খাচ্ছি আমরা। বাধ্য হয়ে দাবি আদায়ে মাঠে নেমেছি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরণ অনশন চলবে। এই শীতে মরে যাবো তবুও রাজপথ ছাড়বো না।

একে/এম

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT