যুক্তরাষ্ট্রে সড়ক দুর্ঘটনার চেয়ে করোনায় মৃত্যুর হার ১০ গুণ বেশি যুক্তরাষ্ট্রে সড়ক দুর্ঘটনার চেয়ে করোনায় মৃত্যুর হার ১০ গুণ বেশি – CTG Journal

বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৩:৪৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
সমুদ্র নিরাপত্তা জোটের বৈঠকে অংশ নেয়নি বাংলাদেশ পানছড়িতে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শত বার্ষিকী উপলক্ষে সংবর্ধনা ও পুরষ্কার বিতরণী সভা অনুষ্ঠিত মাস্ক নিয়ে কঠোর প্রশাসন, ৩২ মামলায় ৩২ জনকে জরিমানা চট্টগ্রাম দাপাবে চার পেট্রোল কার গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি নেবে ১৯ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ইন্টারনেট সুবিধা বাড়াতে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার নাইক্ষ্যংছড়িতে ২দিন ব্যাপী নিউট্রিশন সেনসেটিভ প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ শুরু পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২৩ বছর, বাংলাদেশের সংবিধানের সাথে সাংঘর্ষিক ও বৈষম্য মূলক ধারা গুলো সংশোধন করে চুক্তির পূনঃমূল্যায়ন করার দাবি পরীক্ষার তারিখ না দিলে আমরণ অনশন ৯ মাস পর মিরপুরে মাশরাফি হলমার্কের অর্থ কেলেঙ্কারি: দুদকের ফের অনুসন্ধান শুরু লামায় স্বাস্থ্য কর্মীদের কর্মবিরতিতে ব্যহত হচ্ছে স্বাস্থ্য সেবা
যুক্তরাষ্ট্রে সড়ক দুর্ঘটনার চেয়ে করোনায় মৃত্যুর হার ১০ গুণ বেশি

যুক্তরাষ্ট্রে সড়ক দুর্ঘটনার চেয়ে করোনায় মৃত্যুর হার ১০ গুণ বেশি

এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, গত ১০ মাসে দেশটিতে সড়ক দূর্ঘটনা, আত্মহত্যা আর ব্রেন স্ট্রোকের মতো কারণে যত মানুষ মারা গেছে, তার চেয়ে বেশি মানুষ মরেছে করোনায় আক্রান্ত হয়ে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মার্কিনীরা যদি  মাস্ক পরা আর অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে সচেতন না হয় তাহলে আসছে শীতে এই মৃত্যুহার বেড়ে যাবে কয়েকগুণ।ছবি: রয়টার্স

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১০ মাসেরও কম সময়ে এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে আড়াই লাখ মানুষ মারা গেছেন। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, গত ১০ মাসে দেশটিতে সড়ক দূর্ঘটনা, আত্মহত্যা আর ব্রেন স্ট্রোকের মতো কারণে যত মানুষ মারা গেছে, তার চেয়ে বেশি মানুষ মরেছে করোনায় আক্রান্ত হয়ে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মার্কিনীরা যদি  মাস্ক পরা আর অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে সচেতন না হয় তাহলে আসছে শীতে এই মৃত্যুহার বেড়ে যাবে কয়েকগুণ।

যুক্তরাষ্ট্রে আর যে সমস্ত কারণে মানুষের মৃত্যু হয় সেসবের চেয়ে বহুগুণে ভয়ানক কোভিড-১৯। এর একটা তুলনামূলক চিত্র উপস্থাপন করেছে সিএনএন। গত পাঁচ বছরে মৃত্যুর সংখ্যা ও তাদের কারণ নিয়ে বিশ্লেষণ করে এই পরিসংখ্যান তৈরি করেছে সংবাদমাধ্যমটি।

দেখা গেছে, হৃদরোগ আর ক্যান্সারের পর তৃতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে কোভিড-১৯ এর কারণে।   

সড়ক দুর্ঘটনা বনাম কোভিড-১৯

জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ১০ মাসে যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে আড়াই লাখ লোক মারা গেছে। অন্যদিকে দেশটির ন্যাশনাল হাইওয়ে ট্রাফিক সেফটি অ্যাডমিনিস্ট্রেশন এর দেয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি বছর সড়ক দুর্ঘটনায় প্রায় ২৫ হাজারের মতো মানুষ মারা যায়।  

অর্থাৎ এক বছরে যত লোক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যায় তার চেয়ে প্রায় ১০গুণ বেশি মারা গেছে করোনায়। 

ফ্লু বনাম কোভিড-১৯

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন এর দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৪ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত দেশটিতে বছরে গড়ে ৪২ হাজার মানুষ ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। 

অর্থাৎ ১০ মাসেরও কম সময়ে এর ৫গুণ মানুষ মারা গেছেন করোনায় আক্রান্ত হয়ে। 

আত্মহত্যা বনাম কোভিড-১৯

যুক্তরাষ্ট্রে বছরে আত্মহত্যায় গড়ে ৪৫ হাজার ২৩৯ জন মানুষ মারা যান। অর্থাৎ এর প্রায় ৫গুণ বেশি মানুষ কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। 

তবে নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলছেন, ২০২০ সালে মহামারির কারণে মানসিক চাপের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন মানুষ। এবছর আত্মহত্যার পরিমাণ বেড়ে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন এই গবেষকরা।

স্ট্রোক বনাম কোভিড-১৯

সিডিসি’র দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি বছর গড়ে প্রায় ১ লাখ ৪২ হাজার মানুষ মারা যান মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ থেকে। সে হিসেবে ২০২০ সালে এর ১ দশমিক ৮ গুণ মানুষ মারা গেছেন কোভিডে আক্রান্ত হয়ে। 

তবে যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা যায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে। বছরে গড়ে প্রায় ৬ লাখ ৭০ হাজার মানুষ হার্ট অ্যাটাকসহ বিভিন্ন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। আর দ্বিতীয় কারণ হিসেবে আছে ক্যান্সার। দেশটিতে বছরে গড়ে ৬ লাখ ১২ হাজার মানুষ মারা যান বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে।  

সূত্র: সিএনএন 

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT