সিদ্ধিরগঞ্জে চেতনানাশক খাইয়ে দুটি সোনার দোকানে ডাকাতি সিদ্ধিরগঞ্জে চেতনানাশক খাইয়ে দুটি সোনার দোকানে ডাকাতি – CTG Journal

বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০৯:১৮ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
বরগুনায় সৌদি প্রবাসীসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা: পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ সাংবাদিক নেতা রুহুল আমীন গাজী গ্রেফতার মানিকছড়িতে প্রাথমিক শিক্ষক ও শিক্ষা কর্মকর্তার বিদায় অনষ্ঠান চট্টগ্রাম থেকে রপ্তানি হচ্ছে গরুর নাড়িভুড়ি পরীক্ষা পদ্ধতিতে পরিবর্তন আসছে ধর্মঘটে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙ্গরে পণ্য খালাসে অচলাবস্থা ফরম পূরণের কিছু টাকা ফেরত পাবে এইচএসসি শিক্ষার্থীরা মহাবিশ্বের নক্ষত্রের চেয়েও বেশি ভাইরাস পৃথিবীতে, কিন্তু সব ভাইরাস দ্বারা মানুষ আক্রান্ত হয় না কেন? কারিগরি শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় বসতেই হবে কাপ্তাই এ মার্কেটিং অফিস আছে, দেখা নেই কর্মকর্তার ফেসবুকে নারী সেজে প্রতারণা, ২০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ধর্ষণের অপরাধে সালিশ করা কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট
সিদ্ধিরগঞ্জে চেতনানাশক খাইয়ে দুটি সোনার দোকানে ডাকাতি

সিদ্ধিরগঞ্জে চেতনানাশক খাইয়ে দুটি সোনার দোকানে ডাকাতি

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ উপজেলায় এক মার্কেটের প্রহরী ও অন্যান্য কর্মচারীকে চেতনানাশক খাইয়ে অজ্ঞান করে দুইটি সোনার দোকানে ডাকাতি হয়েছে। শুক্রবার (৯ মার্চ) দিনগত রাতে উপজেলার শিমরাইল মোড় এলাকার হাজী আহসান উল্ল্যাহ সুপার মার্কেটের ক্রাউন ও নদভী জুয়েলার্সে এ ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্তদের দাবি, দুই সোনার দোকান থেকে ৪শ’ ৫৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ সাড়ে তিন লাখ টাকাসহ মোট আড়াই কোটি টাকার মালামাল লুট করেছে ডাকাতেরা। নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) মনিরুল ইসলাম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার গভীর রাতে হাজী আহসান উল্ল্যাহ সুপার মার্কেটের প্রহরী আব্দুল হক ও সিরাজসহ অন্যান্য কর্মচারীকে চেতনানাশক খাইয়ে প্রথমে অচেতন করে ডাকাতেরা। পরে তারা দ্বিতীয় তলার ক্রাউন ও নদভী জুয়েলার্সের সাটার ও কাচের গেট ভেঙে ভেতরে ঢুকে মালামাল লুট করে।

ক্রাউন জুয়েলার্সের মালিক নজরুল ইসলাম ও রাজু জানান, ডাকাতেরা তাদের দোকানের ১০৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ একলাখ ১৬ হাজার নিয়ে গেছে। অন্যদিকে, নদভী জয়েলার্সের মালিক রানা জানান, তার দোকান থেকে ডাকাতেরা প্রায় সাড়ে ৩শ’ ভরি সোনার অলঙ্কার ও কমপক্ষে দেড় লাখ টাকা নিয়ে গেছে।

হাজী আহসান উল্ল্যাহ সুপার মার্কেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিবুল্লাহ হবুল জানান, ডাকাতেরা তার অফিস কক্ষের তালা ভেঙে সিসি ক্যামেরার রেকর্ডার ও নগদ একলাখ টাকা নিয়ে গেছে। প্রহরী আব্দুল হক ও সিরাজকে অচেতন অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও ঝাঁড়ুদার শাহনাজ ও ফরিদাকে অচেতন অবস্থায় নারায়ণগঞ্জ নগরীর খানপুরের ৩শ’ আসন বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলেও তিনি জানান। তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনার পর থেকে সম্প্রতি নিয়োগ করা প্রহরী আব্দুল রব ও খালিদ পলাতক রয়েছে।’

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরির্দশক (অপারেশন) আব্দুল আজিজ জানান, দুইটি জুয়েলার্স থেকে প্রায় ৪শ’ ভরি সোনার অলঙ্কার নিয়ে গেছে ডাকাতেরা। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রহরীসহ ৪ জনকে থানায় আনা হয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুস সাত্তার মিয়া বলেন, ‘ঘটনাটি পরিকল্পিত। এ ঘটনার সঙ্গে পলাতক দুই প্রহরী জড়িত রয়েছে। আমরা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে তাদের গ্রেফতার ও সোনার অলঙ্কার উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছি।’ এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত (শনিবার বিকাল) থানায় কোনও মামলা হয়নি বলেও জানান তিনি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনা পরিকল্পিত। আব্দুর রব নামে একজন প্রহরী রয়েছে, যাকে কমিটির লোকজন চলতি মাসের ১ তারিখ নিয়োগ দিয়েছে। পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। ডাকাতির জন্য কমিটির লোকজনও দায়ী।’

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT