দুর্দিনে আতিথেয়তা ও সমর্থনের জন্য আমরা ভারতের জনগণের কাছে কৃতজ্ঞ: রাষ্ট্রপতি দুর্দিনে আতিথেয়তা ও সমর্থনের জন্য আমরা ভারতের জনগণের কাছে কৃতজ্ঞ: রাষ্ট্রপতি – CTG Journal

শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ১২:১৬ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
শুক্রবার চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত ৮১ সুশাসন প্রতিষ্ঠায় ব্যারিস্টার রফিক উল হকের অবদান অনস্বীকার্য স্থল নিম্নচাপ দেশের মধ্যাঞ্চলে, আজও হতে পারে ভারী বৃষ্টি ব্যারিস্টার রফিক উল হক আর নেই আকবরশাহ’তে ছুরি চাপাতিসহ ২ যুবক গ্রেফতার ফেনীতে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ১ মানিকছড়ি পূজামন্ডবে দুশতাধিক গরীব দুঃস্থর মাঝে বস্ত্র বিতরণ নিম্নচাপ উপকূল অতিক্রম করেছে, সকালে আবহাওয়ার উন্নতি হতে পারে ফাঁদে ফেলে ১৩ বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগ জেলা পরিষদের শিক্ষাবৃত্তি পেল ৩২৪ শিক্ষার্থী সংকটাপন্ন অবস্থাতেই ব্যারিস্টার রফিক উল হক সাজেক মসজিদ-রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের একটি জনবান্ধব প্রকল্প
দুর্দিনে আতিথেয়তা ও সমর্থনের জন্য আমরা ভারতের জনগণের কাছে কৃতজ্ঞ: রাষ্ট্রপতি

দুর্দিনে আতিথেয়তা ও সমর্থনের জন্য আমরা ভারতের জনগণের কাছে কৃতজ্ঞ: রাষ্ট্রপতি

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারত সরকার ও এর জনগণের আন্তরিক অবদান ও সমর্থনের কথা স্মরণ করে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘দুর্দিনে সর্বোচ্চ আতিথেয়তা ও সমর্থনের জন্য আমরা ভারতের জনগণের কাছে কৃতজ্ঞ।’ বৃহস্পতিবার আসামের হোটেল ভিয়াভন্ত বাই তাজ-এ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে রাজ্যের গভর্নর জগদীশ মুখ ও মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল পৃথক পৃথকভাবে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে আসলে তিনি এই কথা বলেন। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতের সময় বাংলাদেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন আসামের নেতারা।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশ থেকে লাখ লাখ মানুষ আসামে আশ্রয় নিয়েছিল। এই বিষয়টি উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ ভারতের মতো পরীক্ষিত ও বন্ধুপ্রতীম প্রতিবেশীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে সব সময় অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে।  আসামের গভর্নর ও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় রাষ্ট্রপতি প্রতিবেশীদের বৃহত্তর স্বার্থে বাংলাদেশ ও আসামের মধ্যে অধিকতর যোগাযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করার ওপর জোর দেন

সোলার সামিটে যোগ দিতে চার দিনের ভারত সফরের অংশ হিসেবে রাষ্ট্রপতি ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামে রয়েছেন। তাকে স্বাগত জানিয়ে আসামের দুই নেতা বলেন, মো. আবদুল হামিদের মতো সত্যিকার দেশপ্রেমিক ও মুক্তিযোদ্ধাকে তাদের মধ্যে পেয়ে তারা খুবই আনন্দিত। তারা পর পর দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদকে অভিনন্দন জানান এবং আশা প্রকাশ করেন যে, আগামী দিনগুলোতে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এক নতুন উচ্চতায় উন্নীত হবে।  দুই নেতা পারস্পরিক স্বার্থে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ করে পর্যটন খাতে উন্নয়ন সম্ভাবনা কাজে লাগানোর প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

এ সময় দুই পক্ষের সংশ্লিষ্ট সচিবরা এবং ঊর্ধ্বতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে রাষ্ট্রপতি রেডিসন ব্লু হোটেলে আসামের গভর্নরের দেওয়া এক নৈশভোজে ভাষণ দেন। মুখ্যমন্ত্রী সনোয়াল বক্তৃতা করেন। রাষ্ট্রপতি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করেন। সে সময় এখানে তিনি সাব-সেক্টর কমান্ডার ছিলেন। এর আগে বিকালে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ কামাক্ষ্যা মন্দির পরিদর্শন করেন এবং মাচখোয়া ঘাটে নৌ ভ্রমণ উপভোগ করেন।

সূত্র: বাসস।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT