মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭:০৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ও আটকে পড়া পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের বোঝা: প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনিসহ মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ৮২ লাখ মানুষ পরমাণু শক্তি আমরা শান্তির জন্য ব্যবহার করবো: প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ায় করোনার ধাক্কা সামলানোর শীর্ষে বাংলাদেশ স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শারদীয়া দুর্গাপুজা উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে মন্দিরে আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন সেনা জোন রামগড়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথে কামাল ‘করোনা পরবর্তী পরিবেশ ও জলবায়ু সহনশীল পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা জরুরি’ ৬ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক কারাগারে জাতীয় পার্টির নতুন মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন ১১ নভেম্বর
হেরে যাওয়ার ভয়ে বিএনপি নেত্রী জনগনকে ব্লাকমেইল করছে -রামগড়ে সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

হেরে যাওয়ার ভয়ে বিএনপি নেত্রী জনগনকে ব্লাকমেইল করছে -রামগড়ে সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিনিধি, রামগড় ও খাগড়াছড়িঃ খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় সফরকালে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘ আসন্ন নির্বাচন শেখ হাসিনার অধীনে নয়; নির্বাচন কমিশনের অধীনে হবে। হেরে যাওয়ার ভয়ে বিএনপি নেত্রী জনগনকে ব্লাকমেইল করছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, পদ্মাসেতুসহ মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন দেখে খালেদা জিয়ার গাত্রদাহ শুরু হয়েছে।
বুধবার দুপুরে খাগড়াছড়ির রামগড়ে নির্মিতব্য বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রি সেতু-১ নিয়ে ভারত-বাংলাদেশ উচ্চ পর্যায়ের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ফেনী নদীর উপর রামগড়-সাবব্রুম হয়ে নির্মান হতে যাওয়া বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রি সেতুর কিছু জটিলতা এবং বিদ্যুৎ, পানিসহ ভারতের কিছু চাহিদা আছে। সেগুলো জানুয়ারীর মধ্যে সমাধান করে ফেব্রুয়ারীর শুরুর দিকে সেতুর কাজ পুরোদমে শুরু হবে বলেও জানান তিনি। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।

এসময় হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেন, ভারত ও বাংলাদেশ বিভিন্ন সংযোগ প্রকল্প একযোগে কাজ করছে তার মধ্যে ফেনী নদীর ওপর প্রস্তাবিত সেতু তেমনি একটি প্রকল্প। এটি দক্ষিন ত্রিপুরা ও বাংলাদেশের বাণিজ্যিক রাজধানীর মধ্যে সরাসরি সংযোগ সড়কের ব্যবস্থা করবে।

এদিকে রামগড়ের মহামুনী এলাকায় বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রি সেতু-১ এর স্থান পরিদর্শণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা প্রশাসক মোঃ রাশেদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার আলী আহম্মদ খান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আল মামুন মিয়া, রামগড় পৌর মেয়র মোঃ শাহাজানাহন রিপন প্রমুখ।

জানা গেছে,২২৮ কোটি ৬৯ লাখ ভারতীয় রুপি ব্যয়ে নির্মিতব্য সেতুটির দৈর্ঘ্য হবে ৪১২ মিটার। ধারনা করা হচ্ছে ২০১৯ সালের মধ্যে সেতুটির নির্মান কাজ শেষ হবে।

২০১৫ সালের ৬জুন ঢাকা সফরের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফেনী নদীর ওপর রামগড়-সাবরুম মৈত্রি সেতু ১এর ভিত্তি প্রস্তর উন্মোচন করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT