রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:৫৯ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ও আটকে পড়া পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের বোঝা: প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনিসহ মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ৮২ লাখ মানুষ পরমাণু শক্তি আমরা শান্তির জন্য ব্যবহার করবো: প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ায় করোনার ধাক্কা সামলানোর শীর্ষে বাংলাদেশ স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শারদীয়া দুর্গাপুজা উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে মন্দিরে আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন সেনা জোন রামগড়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথে কামাল ‘করোনা পরবর্তী পরিবেশ ও জলবায়ু সহনশীল পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা জরুরি’ ৬ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক কারাগারে জাতীয় পার্টির নতুন মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন ১১ নভেম্বর
সাড়ে ছয় বছর পার: বরাদ্দের অভাবে আলীকদমে পানি শোধনাগার প্রকল্পের কাজে স্থবিরতা

সাড়ে ছয় বছর পার: বরাদ্দের অভাবে আলীকদমে পানি শোধনাগার প্রকল্পের কাজে স্থবিরতা

মো. নুরুল করিম আরমান, লামাঃ বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার পানি শোধনাগার প্রকল্পের সাড়ে ছয় বছর পার হলেও শেষ হয়নি নির্মাণ কাজ। পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এম.পি এ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

কিন্তু এ প্রকল্পের কাজ কবে নাগাদ শেষ হবে তা বলতে পারছে না সংশ্লিষ্টরা। প্রতিবছর গ্রীষ্ম মৌসুমে আলীকম উপজেলার সদরসহ আশপাশের বাসিন্দাদের পানি সংকটে পড়তে হয়। এ প্রকল্পের কাজ শেষ হলে অন্তত ৫ হাজারেরও বেশি মানুষ বিশুদ্ধ পানি সেবার আওতায় আসবে। সাড়ে ছয় বছরের মাথায় এসেও প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে এলাকাবাসী।

সূত্রে জানা যায়, আলীকদম উপজেলার পানীয়জলের সঙ্কট লাঘবে পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপির আন্তরিক প্রচেষ্টায় মাতামুহুরী নদীর পানি শোধনের মাধ্যমে এলাকায় সরবরাহের জন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। ২০১১ সালের ১১ জুন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের তৎকালীন চেয়ারম্যান বর্তমান পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। অথচ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের দীর্ঘ ছয় বছর পরও শেষ হয়নি এ প্রকল্পের নির্মাণকাজ।

স্থানীয়রা জানায়, পানি শোধনাগার প্রকল্পের অধীনে সাত কিলোমিটার এলাকায় পাইপ লাইন বসানো হবে। আলীকদম উপজেলা সদরে পানি সরবরাহ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে সরকারি কর্মচারীদের বিভিন্ন আবাসিক ভবন, আলীকদম বাজারপাড়া, খুইল্যা মিয়া পাড়া, আমতলী, পূর্ব পালংপাড়া, বাস টার্মিনাল এলাকা, উত্তর পালংপাড়া, ছাবের মিয়াপাড়া, থানা পাড়া, সদর হিন্দুপাড়া ও অংবাই কার্বারি পাড়ার মানুষের পানীয় জলের সংকট কেটে যাবে। কিন্তু অর্থ ছাড়ের দীর্ঘসূত্রতায় প্রকল্পটি আলোর মুখ দেখবে কি না তা নিয়ে স্থানীয় লোকজনের মধ্যে সংশয় দেখা দিয়েছে।

থানা পাড়ার বাসিন্দা আবদুর শুকুর, আবদুর ছবুর ও ছাবের উদ্দিন বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে এলাকার পানি সংকট মুছে যেত।

এ ব্যাপারে আলীকদম উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মনির হোসেন জানান, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ উপজেলা সদরে পানি শোধনাগার নির্মাণ প্রকল্পের কারিগরি সহায়তায় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ। কিন্তু এ প্রকল্পের জন্য যে পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ প্রয়োজন ছিল সে পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ না পাওয়ায় প্রকল্পটির কাজের অগ্রগতি সম্ভব হচ্ছে না।

এ ব্যাপারে বান্দরবান জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সোহরাব হোসেন জানান, আলীকদম পানি সরবরাহ প্রকল্পের জন্য বরাদ্দের প্রস্তাব সরকারের উচ্চমহলে চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। বরাদ্দ এলেই বাকি কাজ শুরু করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT