‘সাংবাদিক হত্যার বিচার হয় না দেখে মানুষ হাসে’ - CTG Journal ‘সাংবাদিক হত্যার বিচার হয় না দেখে মানুষ হাসে’ - CTG Journal

শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৬:০৭ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
স্বাস্থ্য খাতকে বদলে দিতে কোভিড-১৯ এর ৪ অবদান মাদকাসক্তদের ৮০ ভাগই কিশোর করোনা ভয়ঙ্কর/ চট্টগ্রামে ৫ মৃত্যুর সঙ্গে শনাক্তের হার ২৯ শতাংশ হাসপাতাল থেকে যেমন এসেছেন ‌‘তেমনই’ আছেন খালেদা জিয়া ডোপ টেস্টে পজিটিভ হলে সরকারি চাকরি মিলবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেসরকারি পর্যায়ে অ্যান্টিজেন পরীক্ষার অনুমোদন দিচ্ছে সরকার চন্দ্রঘোনায় আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন রোটারি ক্লাব অব চিটাগাং সেন্ট্রালের ৮ম অভিষেক আগামী নির্বাচন ঘিরে বিএনপির যত উদ্যোগ কাশ্মিরি নেতাদের সঙ্গে বৈঠক, রাজ্য মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি মোদির নগরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দু’জনের মৃত্যু সেনাবাহিনী ও জনগণের মধ্যে কোনও দূরত্ব থাকবে না: নতুন সেনাপ্রধান
‘সাংবাদিক হত্যার বিচার হয় না দেখে মানুষ হাসে’

‘সাংবাদিক হত্যার বিচার হয় না দেখে মানুষ হাসে’

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যায় কালক্ষেপণ না করে জড়িতদের শনাক্ত, গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (একাংশ) এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) আয়োজনে এক বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে এই দাবি জানানো হয়। 

সাংবাদিক নেতারা বলেন, সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের ১০ বছর হলো, অথচ এখনও খুনিদের শনাক্ত করে বিচার হলো না। আমরা এই রহস্য উন্মোচনের দাবি জানাচ্ছি। মানুষ আজ হাসে সাংবাদিক হত্যার বিচার না হওয়ার কারণে। তাহলে সাধারণ মানুষের কী হবে। হত্যার পর খুনিরা সাগর-রুনির বাসা থেকে ল্যাপটপ নিয়ে গেছে। সে ল্যাপটপ উদ্ধার করতে পারেনি তদন্ত সংশ্লিষ্টরা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। সে ল্যাপটপে কী এমন তথ্য ছিল, তাও উন্মোচন হয়নি।

বক্তারা বলেন, তদন্ত সংশ্লিষ্টদের অনীহা ও গাফলতি রয়েছে। না হলে ৪৮ ঘণ্টার ঘোষণার পর ৪৮ হাজার ঘণ্টা পার হয়েছে। ১০ বছর অতিবাহিত হয়েছে হত্যার রহস্য উন্মোচন হয়নি। এখন কোনও প্রহসন নয়, আমরা অবিলম্বে সাংবাদিক দম্পতি হত্যার বিচার চাই। প্রধানমন্ত্রী স্বজন হারানোর ব্যথা বোঝেন। তাহলে কেন আজ সাগর-রুনি হত্যার বিচার হচ্ছে না। সাগর রুনির হত্যাকারীরা কোন মাফিয়ার আওতায় আছে, তারা কার মেন, তা খুঁজে বের করতে হবে।

তারা বলেন, ১০ বছর হলো, ৭৮ বার আদালত থেকে তদন্ত পেছানো হয়েছে, যা ইতিহাসে নজিরবিহীন। আর কত? র‌্যাবও এখন তদন্ত থেকে সরে আসতে চাইছে। তাহলে কি আমরা বুঝবো সরকার এর পেছনে রয়েছে! আমরা এখন এই হত্যকাণ্ডের দ্রুত বিচার চাই।

কর্মসূচি থেকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলে বিচার দাবিতে সোচ্চার হওয়ার দাবি জানানো হয়।

কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, ডিআরইউ’র সভাপতি মোরসালিন নোমান, সাবেক সভাপতি ইলিয়াস হোসেন, বিএফইউজে ভাইস প্রেসিডেন্ট মোদাব্বের হোসেন, কেষাধ্যক্ষ খাইরুল বাশার, সাংবাদিক নেতা কায়কোবাদ মিলন, জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, মো. মাহজাহান সাজু, মাজাহারুল ইসলাম, শাখাওয়াত হোসেন মুকুল, একেএম মহসিন, বাসির জামাল প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT