লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ, আইনজীবীকে জরিমানা - CTG Journal লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ, আইনজীবীকে জরিমানা - CTG Journal

বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ১২:৫৫ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ করেই এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা খালেদা জিয়ার আবেদন ইতিবাচকভাবে দেখছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিক সত্যজিৎ এর উপর হামলা: জড়িতদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবীতে উত্তাল খাগড়াছড়ি রাউজানে খাবার হোটেলে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য, জরিমানা এতিমদের সম্মানে সানরাইজ ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া রাউজানে ৪০ জন কৃষক পেল ২০ লক্ষ টাকার কৃষি ঝণ রাউজানে মসজিদ পরিচালনা কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্ব: পলাতক আসামি গ্রেফতার ৫ লাখ ডোজ টিকা আসছে ঈদের আগে ঈদের ছুটিতে কর্মস্থলে থাকতে হবে ব্যাংক কর্মকর্তাদের লামায় ৩০০জন কর্মহীন মানুষকে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক উপহার প্রদান মহালছড়ি সেনা জোনের ব্যবস্থাপনায় মানবিক সহায়তা রামগড়ে হিমাগার না থাকায় নষ্ট হচ্ছে উৎপাদিত পণ্য, ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কৃষক
লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ, আইনজীবীকে জরিমানা

লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ, আইনজীবীকে জরিমানা

লকডাউন দেওয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হওয়া রিট খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে রিটকারী আইনজীবী ড. ইউনুছ আলী আকন্দকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। আদালত বলেছেন, তিনি কোর্টে এক ধরনের মামলা করেন। কিন্তু সংবাদমাধ্যমের কাছে জানানোর পর আর শুনানিতে আসেন না, এ কারণেই তাকে এই জরিমানা।

বুধবার (৫ মে) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সরদার রাশেদ জাহাঙ্গীরের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন রিটকারী আইনজীবী ড. ইউনুছ আলী আকন্দ।

এর আগে জরুরি অবস্থা জারি ছাড়া লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত ২৫ এপ্রিল হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আইনজীবী ড. ইউনুছ আলী আকন্দ এ রিট দায়ের করেছিলেন।

রিট আবেদনে বলা হয়েছিল,  দেশে জরুরি অবস্থা জারি করা ছাড়া জনগণের চলাফেরার অধিকার, আইনের আশ্রয় লাভের অধিকার সরকার স্থগিত রাখা যায় না। এটা সংবিধান পরিপন্থী।  এ কারণে রিটে চলমান লকডাউন স্থগিত চাওয়া হয়। একইসঙ্গে রিট আবেদনে পুনরায় লকডাউন না দেওয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সচিব সহ সংশ্লিষ্টদের এ রিটে বিবাদী করা হয়।

প্রসঙ্গত, এর আগে আদালত নিয়ে ফেসবুকে বিরূপ স্ট্যাটাস দেও ড. ইউনুছ আলী আকন্দকে পেশা পরিচালনা থেকে তিন মাসের অব্যাহতি দিয়েছিলেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ১৫ দিনের কারাদণ্ড প্রদান করেছিলেন আদালত। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে মামলা দায়ের করেও শুনানিতে অংশ না নেওয়ায় ইউনুছ আলী আকন্দ কয়েকবার জরিমানা দিতে হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT