রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: কমিশনার শাহাদাত - CTG Journal রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: কমিশনার শাহাদাত - CTG Journal

বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৬:২৭ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
কারাগারে কয়েদিকে নির্যাতনের অভিযোগে মামলা, পিবিআই’কে তদন্তের নির্দেশ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মিললো তিন কোটি টাকার ‘আইস’ বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানালেন জাতিসংঘ মহাসচিব কোভিড-১৯: আরও ৭ মৃত্যু, শনাক্ত ৬১৯ ১০ মাস পর কার্টুনিস্ট কিশোরের কারামুক্তি গোপালগঞ্জ ও বরিশাল সফর করতে পারেন নরেন্দ্র মোদি কাপ্তাই হ্রদে অজ্ঞাত যুবকের লাশ, পকেটে মিলল টাকা ও মোবাইল আসামির নাম জামাল, গ্রেফতার হলেন কামাল! করোনা পারে নাই, আর কেউ অগ্রযাত্রা থামাতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী প্রেসক্লাবের সামনে যুবদলের প্রতিবাদ সমাবেশ নতুন করে শনাক্ত বাড়ছে কেন? ফেল করানোর ভয় দেখিয়ে যৌন হয়রানি: খাগড়াছড়ির শিক্ষককে ঢাকায় গ্রেফতার
রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: কমিশনার শাহাদাত

রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: কমিশনার শাহাদাত

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে রাষ্ট্রপতিকে দেওয়া ৪২ জন বিশিষ্ট নাগরিকের চিঠিকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে আখ্যা দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘এটা হয়তোবা কোনও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং এগুলোর কোনোটার ভিত্তি আছে বলে আমি মনে করি না। এরকম একটা বিষয় উপস্থাপন করা সুধীজনের জন্য বিবেচনা প্রসূত নয়।’

রবিবার (২০ ডিসেম্বর) বিকালে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব মন্তব্য করেন।

কী উদ্দেশ্যে বিশিষ্টজনরা এটা করেছে এমন প্রশ্নের জবাবে এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘কী উদ্দেশ্যে তারা এ কাজ করেছেন, সেটা তারাই বলতে পারবেন।’

যে অভিযোগগুলো তারা তুলেছেন, সে বিষয়ে রাষ্ট্রপতি কী করবেন, সেটা তার ব্যাপার বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

অভিযোগগুলোর বিষয়ে নিজের ব্যাখ্যা তুলে ধরে কমিশনার শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘বিশিষ্টজনরা যে এ ধরনের কথা বলছেন, দু-একটা পত্রিকা বা টেলিভিশনের প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করেই তারা এ ধরনের একটা অভিযোগ করেছেন। বিশেষ করে প্রশিক্ষণ ও গাড়ি ব্যবহারের বিষয়টা যে পত্রিকা ছাপিয়েছিল, সেখানে আমরা রিজয়েন্ডার দিয়েছিলাম। আমরা জানি না, সেটা তাদের নজরে এসেছে কিনা। দ্বিতীয়ত, গাড়ির যে ব্যবহারের বিষয়, আমার মনে হয় না আমাদের সেই প্রয়োজন আছে। কারণ, আমাদের প্রাধিকারভুক্ত গাড়ি সেটাই আমরা শপথ নেওয়ার তিন বছর পর পেয়েছি। তারা যে গাড়িগুলো অত্যন্ত বিলাসবহুল হিসেবে বলেছেন, আমরা জানি না বিলাসবহুল ছাড়া অন্য গাড়ি কোনগুলো। আমি তো দেখেছি, সেগুলো ইউএনওরাও ব্যবহার করছেন। বাড়তি গাড়ি ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা আমার নাই, আমার বিশ্বাস অন্যদেরও নাই।’

তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির কাছে তারা অভিযোগ স্থাপন করলেন, আবার আমাদেরকেও অভিযুক্ত করে ফেললেন। শুধু সেটা না, আমাদের কী করণীয় বা আমাদের কী দণ্ড সেটাও এক অর্থে দিয়ে দিলেন। সেটা কতখানি বিবেচনাপ্রসূত বা শিষ্টাচার বর্জিত কিনা, সেটা বিবেচনার ভার আপনাদের।’

মানহানির বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়ায় যাবেন কিনা, এমন প্রশ্নে  এই কমিশনার কিছু জানাতে রাজি হননি। আরেক প্রশ্নের জবাবে কমিশনার বলেন, ‘বর্তমান নির্বাচন কমিশন যথেষ্ট চেষ্টা করছে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ করার জন্য। নির্বাচন কমিশনের যতটুকু করণীয় তার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে।’

নির্বাচন কমিশন প্রশ্নের মুখোমুখি হলো কিনা, এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি না। জাতির কাছে আপনাদের মাধ্যমে আমি তুলে ধরেছি যে, সেটা কতখানি বিবেচনাপ্রসূত।’

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT