রাতভর অভিযানে মিয়ানমারে নিহত ৬০, প্যাগোডা ও খেলার মাঠে লাশের স্তুপ - CTG Journal রাতভর অভিযানে মিয়ানমারে নিহত ৬০, প্যাগোডা ও খেলার মাঠে লাশের স্তুপ - CTG Journal

বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ০১:১৫ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
১৫৫ জন আক্রান্তের দিনে মৃত্যু আরও ৪ ঈদ বোনাস কি বকেয়া হয়? করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৫ কোটি ৫৮ লাখ ছাড়িয়েছে দৈনিক শনাক্ত ও মৃত্যুর নতুন রেকর্ড ভারতের কালবৈশাখী আসতে পারে সন্ধ্যায় যে যেখানে আছেন সেখানেই ঈদ করুন: প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে বিদেশ নেওয়ার আবেদন এখন আইন মন্ত্রণালয়ে সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ করেই এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা খালেদা জিয়ার আবেদন ইতিবাচকভাবে দেখছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিক সত্যজিৎ এর উপর হামলা: জড়িতদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবীতে উত্তাল খাগড়াছড়ি রাউজানে খাবার হোটেলে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য, জরিমানা এতিমদের সম্মানে সানরাইজ ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া
রাতভর অভিযানে মিয়ানমারে নিহত ৬০, প্যাগোডা ও খেলার মাঠে লাশের স্তুপ

রাতভর অভিযানে মিয়ানমারে নিহত ৬০, প্যাগোডা ও খেলার মাঠে লাশের স্তুপ

অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভকারীদের গড়ে তোলা ব্যারিকেড অপসারণ করতে গিয়ে মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলীয় শহর বাগোতে ৬০ জনেরও বেশি মানুষকে হত্যা করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, প্রাচীন এই শহরটির প্যাগোডা ও স্কুলের খেলার মাঠে মরদেহ স্তুপ করে রেখেছে জান্তা সরকারের বাহিনী। মার্কিন সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত সংবাদমাধ্যম রেডিও ফ্রি এশিয়ার (আরএফএ) এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, শুক্রবার মিয়ানমারের বাগো শহরে গুলিবৃষ্টি চালিয়েছে পুলিশ ও সেনাবাহিনী।

গত ১ ফেব্রুয়ারির সেনা অভ্যুত্থানের বিরোধিতা করতে বাগো শহরের রাস্তায় ব্যারিকেড গড়ে তোলা হয়। প্রায় আড়াই লাখ মানুষের শহরটিতে শুক্রবার সন্ধ্যা নামার আগেই অভিযান শুরু করে নিরাপত্তা বাহিনী।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাগো শহরের এক বাসিন্দা বলেন, ‘আমাদের মানুষেরা বুঝতে পেরেছিলো তারা (নিরাপত্তা বাহিনী) আসতে পারে। আর এজন্য রাতভর অপেক্ষা ছিলো। সেনা সদস্যরা ভারী অস্ত্র ব্যবহার করেছে। আমরা মর্টার শেলও পেয়েছি। মেশিনগান দিয়েও প্রচুর গুলি করা হয়েছে। তাজা গুলি ছাড়াও সেনা সদস্যরা গ্রেনেড লাঞ্চারও ব্যবহার করেছে।’

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, শনিবার সকাল আটটা পর্যন্ত মাত্র তিনটি মরদেহ উদ্ধার করতে পেরেছেন তারা। এছাড়া জিয়ামুনি প্যাগোডা এবং কাছের একটি স্কুলে স্তুপ করে রাখা মরদেহ সরিয়ে নিচ্ছে সেনাবাহিনী।

বাগো শহরের এই রক্তক্ষয় নিয়ে এখন পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেনি মিয়ানমারের সেনা সরকার। অভ্যুত্থানের পর থেকে এখন পর্যন্ত মিয়ানমারে অন্তত ৬৫০ বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে। এছাড়া প্রায় তিন হাজার মানুষকে আটক করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT