রাঙামাটিতে করোনা টিকাদান কর্মসূচি ঘিরে অব্যবস্থাপনার অভিযোগ - CTG Journal রাঙামাটিতে করোনা টিকাদান কর্মসূচি ঘিরে অব্যবস্থাপনার অভিযোগ - CTG Journal

শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২:০৯ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
গাঁজাক্ষেত ধ্বংস, আটক ৩ হোটেল থেকে সুবর্ণজয়ন্তীর উদ্বোধন করবে বিএনপি করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা করলেন গুতেরেজ ভাল্লুকের কামড়ে আহত দুইজন মুরং উপজাতিকে হেলিকপ্টারে নিয়ে এলো সেনাবাহিনী ৪৮ ঘণ্টা পর মুক্ত বাতাসে বাংলাদেশ দল ভ্যাকসিন গ্রহণের পরও সংক্রমিত হতে পারেন যে কারণে করোনাভাইরাস: দেশে ১১ মৃত্যুর দিনে শনাক্ত ৪৭০ মুশতাক আহমেদের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন, অপমৃত্যুর মামলা কওমি শিক্ষার্থীদের কর্মমুখী ও সাধারণ শিক্ষার সুযোগ দেবে সরকার করোনার প্রভাব সুদূরপ্রসারী, পুরোপুরি সারে না ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ যুক্তরাষ্ট্রে যথাযথ কাগজপত্রবিহীন বাংলাদেশিদের বৈধ করার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ৭, আহত ১৫
রাঙামাটিতে করোনা টিকাদান কর্মসূচি ঘিরে অব্যবস্থাপনার অভিযোগ

রাঙামাটিতে করোনা টিকাদান কর্মসূচি ঘিরে অব্যবস্থাপনার অভিযোগ

রাঙামাটিতে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি ঘিরে চরম অব্যবস্থাপনার অভিযোগ উঠেছে। টিকা সংগ্রহের আগ্রহ বাড়লেও বাড়েনি টিকাদান কেন্দ্র ও বুথের সংখ্যা। এ কারণে সাধারণ মানুষ টিকা নিতে এসে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে প্রথম তিন দিনের তুলনায় টিকা কেন্দ্রে দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। পুরো জেলায় গত তিন দিনে দুই হাজার ছয় জন করোনা টিকা সংগ্রহ করেছেন।

টিকা নিতে আসা সাধারণ মানুষের অভিযোগ, ঘণ্টার পর ঘণ্টা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও তারা টিকা নিতে পারেননি। এসময় স্বজনপ্রীতির অভিযোগ করেন লাইনে দাঁড়ানো ভুক্তভোগীরা। ঝক্কি-ঝামেলা এড়িয়ে যারা টিকা সংগ্রহ করতে পেরেছেন তারা ফেলেছেন স্বস্তির নিঃশ্বাস।

একটি ছোট্ট কক্ষে দুটি আলাদা চেয়ারে নারী ও পুরুষদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। নারী ও পুরুষদের জন্য আলাদা বুথের ব্যবস্থা না করায় টিকা নিতে অস্বস্তির কথা জানান নারীরা। তারা টিকা দেওয়অর জন্য নারীদের আলাদা বুথের দাবি করেছেন।

টিকা নিতে আসা মনসুর আলী অভিযোগ বলেন, দুই ঘণ্টা হয়ে গেল যেখানে লাইনে ছিলাম এখনও সেখানেই আছি। কিছুক্ষণ পর পর লাইন বাদ দিয়ে অনেকে ভেতরে যাচ্ছেন টিকা নিয়ে আবার চলেও যাচ্ছেন। জিজ্ঞেস করলে বলেন, তারা নাকি ডাক্তার আবার কেউ পুলিশের লোক। এভাবে লাইনে দাঁড় করিয়ে রেখে সাধারণ মানুষকে কষ্ট দেওয়ার কোনও মানে হয় না।

টিকা নিতে আসা সুভ্রত চাকমা বলেন, বয়স্কদের জন্য বসার কোনও ব্যবস্থা রাখা হয়নি। দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে অনেকে অসুস্থবোধ করছেন। আর করোনার এই সময় যেভাবে লোকজনকে দাঁড় করানো হয়েছে সেটাও ঠিক হয়নি।

মো. কামাল উদ্দিন বলেন, একটি মাত্র বুথ দিয়ে টিকা কর্যক্রম চালানোর কারণে সাধারণ মানুষ ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। আরও দুই-একটি বুথ হলে মানুষ দ্রুত ও সুন্দরভাবে টিকা নিতে পারতো।

মল্লিকা দেব জনান, পুরুষ ও নারীদের আলাদা লাইন হলে ভালো হতো। এভাবে পুরুষের সঙ্গে আমাদের টিকা দিতে সমস্যা হচ্ছে। একই বুথে পুরুষের সঙ্গে নরীদের টিকা নেওয়া বিব্রতকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।

টিকা নিতে আসা জেসি চাকমা বলেন, অনেকে পর্দা করে থাকেন, তাদের কথা ভেবে নারীদের আলাদা রুমে আলাদা বুথ করা প্রয়োজন ছিল।

রাঙামাটি সদর হাসপাতালের আবাসিক প্রতিনিধি শওকত আকবর অব্যবস্থাপনা ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, প্রথম তিন দিনের তুলনায় চতুর্থ দিনে করোনা টিকা সংগ্রহকারীদের ভিড় বেড়েছে। লোক বাড়ার কারণে বুথ আরও বাড়ানো হবে বলে জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT