রফতানি শিল্পে পুনঃঅর্থায়ন ঋণ দেবে ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান - CTG Journal রফতানি শিল্পে পুনঃঅর্থায়ন ঋণ দেবে ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান - CTG Journal

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
দিনে সাইকেল চুরি, রাতে ইয়াবা বিক্রি সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ ১৯ দিনে জামিনে মুক্ত ৩৩ হাজার কারাবন্দি ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে? পানছড়িতে ভেস্তে যাচ্ছে এলজিইডি’র ১ কোটি ৬২ লাখ টাকার তীর রক্ষা প্রকল্প: মরে যাচ্ছে ঘাস, তীরে ধরেছে ফাটল খালেদা জিয়ার বিদেশযাত্রা নিয়ে নতুন হিসাব-নিকাশ চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় কাপ্তাইয়ে বিএনপির দোয়া ও ইফতার মাহফিল চৈতন্য গলির জুয়ার আস্তানায় পুলিশের হানা, আটক ১৪ সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ রাউজানে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার বাংলাদেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা
রফতানি শিল্পে পুনঃঅর্থায়ন ঋণ দেবে ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান

রফতানি শিল্পে পুনঃঅর্থায়ন ঋণ দেবে ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান

রফতানিমুখী শিল্প খাতের প্রযুক্তিগত উন্নয়নের জন্য গঠন করা হয়েছে পুনঃঅর্থায়ন তহবিল’। এই তহবিলের আওতায় পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা পেতে বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে ৯টি বাণিজ্যিক ব্যাংক ও ৫টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ ব্যাংকের সাসটেইনেবল ফিন্যান্স ডিপার্টমেন্টের আয়োজনে এ চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

এক হাজার কোটি টাকার এই পুনঃঅর্থায়ন স্কিমের উৎস হবে বাংলাদেশ ব্যাংক। ২০২৪ সালের মধ্যে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণ, ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জন এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার লক্ষ্যে নতুন এই স্কিম গঠন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষে সাসটেইনেবল ফিন্যান্স ডিপার্টমেন্টের মহাব্যবস্থাপক এবং ইস্টার্ন ব্যাংক , মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক, এক্সিম ব্যাংক, দি প্রিমিয়ার ব্যাংক, এনআরবি ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, আইপিডিসি ফিন্যান্স, আইডিএলসি ফিন্যান্স, বাংলাদেশ ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানি , ইউনাইটেড ফিন্যান্স এবং ইনফ্রাসক্ট্রাচার ডেভেলপমেন্ট কোম্পানির প্রধান নির্বাহীরা প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

গত ১৭ জানুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, রফতানিমুখী শিল্প খাতের প্রযুক্তিগত উন্নয়নের জন্য আবর্তনশীল এই তহবিলের আকার হবে মোট এক হাজার কোটি টাকা। তহবিলের সুবিধা নেওয়ার জন্য প্রতিটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাসটেইনেবল ফিন্যান্স ডিপার্টমেন্টের সঙ্গে অংশগ্রহণমূলক একটি চুক্তি করতে হবে। চুক্তি অনুযায়ী প্রতিটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে পার্টিসিপেটিং ফিন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউশন (পিএফআই) হিসেবে গণ্য করা হবে।

গ্রাহক পর্যায়ে এই তহবিলের ঋণে সুদহার হবে সর্বোচ্চ ৪ শতাংশ। তবে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ১ শতাংশ সুদ আদায় করবে বাংলাদেশ ব্যাংক। ঋণের মেয়াদ পাঁচ বছরের কম হলে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুনাফার সঙ্গে সর্বোচ্চ ২ শতাংশ মার্জিন সুদ আদায় করতে পারবে ব্যাংক। পাঁচ বছরের বেশি কিন্তু আট বছরের কম মেয়াদী ঋণের সুদ হার হবে সর্বোচ্চ সাড়ে ৩ শতাংশ এবং আট বছরের বেশি কিন্তু দশ বছরের কম হলে সেই ঋণের সুদ হবে সবমিলিয়ে ৪ শতাংশ।

এই তহবিল থেকে ঋণ নিতে হলে ঋণ-মূলধনের অনুপাত হতে হবে ৭০:৩০ শতাংশ। অর্থাৎ ৩০ শতাংশ মূলধনের বিপরীতে ৭০ শতাংশ ঋণ নিতে পারবেন গ্রাহক। এছাড়া যেসব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মোট খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১০ শতাংশের বেশি তারা এই তহবিল ব্যবহার করে ঋণ নিতে পারবে না। পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা পেতে আবেদনের সময় মূলধন পর্যাপ্ততা, সংস্থান সংরক্ষণ, নগদ সংরক্ষণ হার (সিআরআর) ও বিধিবদ্ধ তরল সম্পদ সংরক্ষণ হার (এসএলআর) বাংলাদেশ ব্যাংক নির্ধারিত হারে সংরক্ষণ করতে হবে। ক্যামেলস রেটিং হতে হবে ন্যূনতম ৩ শতাংশ।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT