বুধবার, ০৬ Jul ২০২২, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ও আটকে পড়া পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের বোঝা: প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনিসহ মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ৮২ লাখ মানুষ পরমাণু শক্তি আমরা শান্তির জন্য ব্যবহার করবো: প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ায় করোনার ধাক্কা সামলানোর শীর্ষে বাংলাদেশ স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শারদীয়া দুর্গাপুজা উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে মন্দিরে আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন সেনা জোন রামগড়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথে কামাল ‘করোনা পরবর্তী পরিবেশ ও জলবায়ু সহনশীল পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা জরুরি’ ৬ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক কারাগারে জাতীয় পার্টির নতুন মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন ১১ নভেম্বর
মানিকছড়িতে হাজারো ছাত্র-জনতার উপস্থিতিতে শিক্ষক রমিজ মিয়ার নামাজে জানাজা সম্পন্ন

মানিকছড়িতে হাজারো ছাত্র-জনতার উপস্থিতিতে শিক্ষক রমিজ মিয়ার নামাজে জানাজা সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিনিধি, মানিকছড়িঃ মানিকছড়ি উপজেলার ‘ডাইনছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের’ প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি রমিজ মিয়ার অকাল মৃত্যুর খবরে উপজেলায় শোকের মাতম চলছে।

রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় নিহতের প্রতিষ্ঠান ডাইনছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রথম জানাজা এবং সামাজিক মসজিদ মাঠে দ্বিতীয় জানাজা শেষে বাবা-মা’র কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়েছে। নামাজে জানাজায় উপজেলার শীর্ষ প্রশাসনিক কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক-ছাত্র সমাজ,অভিভাবকরা অংশগ্রহন করে সর্বজন শ্রদ্ধেয় প্রিয় শিক্ষককে রমিজকে শেষ বিদায় দিয়েছেন।

গত ৩০ ডিসেম্বর বিকালে জেএসসি’র ফলাফল বির্পযয় দেখে প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি রমিজ মিয়া স্ট্রোক করেন। পরে তাকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করলে রাত ৭টায় তাঁর মৃত্যু ঘটে। (ইন্নালিল্লাহি……….. রাজিউন)। রাত সাড়ে ৯টায় নিহতের লাশ বাড়িতে আনার আগেই হাজারো জনতার ভীড়ে এবং শোকাহত মানুষের কান্নায় পরিবেশ ভারী হয়ে উঠছিল।

উপজেলা প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক ও ছাত্রসমাজসহ সর্বজনতার ভীড় ডিঙ্গিয়ে শিক্ষকের নিথর দেহ দেখতে হিমশিম খেতে হয়েছে শোকাহত জনতাকে।

নিহতের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে,ডাইনছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি রমিজ মিয়ার(৪৫) অকাল মৃত্যুর খবর দ্রুত সময়ের মধ্যে ফেইস বুক,অন-লাইন পত্রিকায় প্রকাশের পর পর উপজেলার শীর্ষ প্রশাসনিক কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি,রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ,শিক্ষক-ছাত্র সমাজ,অভিভাবকসহ সর্বস্তরের নারী-পুরুষরা নিহতের বাড়িতে (পান্নাবিল) ভীড় জমাতে থাকে।

রাত সাড়ে ৯টার পর শিক্ষক রমিজ মিয়ার নিথর দেহ নিয়ে এ্যাম্বুলেন্স বাড়ি পৌছার আগেই হাজারো জনতা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিল সর্বজন শ্রদ্ধেয় শিক্ষক রমিজকে শেষ বারের মত দেখার অপেক্ষায়। উপজেলা চেয়ারম্যান ম্্রাগ্য মারমা,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও বর্তমান জেলা পরিষদ সদস্য এম.এ. জব্বার, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এম.এ. রাজ্জাক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আহ্সান উদ্দীন মুরাদ, ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. তাজুল ইসলাম বাবুল, অফিসার ইনচার্জ মো. মাইন উদ্দীন খান, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও তিনটহরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আতিউল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও যোগ্যাছোলা ইউপি চেয়ারম্যান মো. জয়নাল আবেদীন,সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক, বাটনাতলী ইউপি চেয়ারম্যান মো. শহীদুল ইসলাম মোহন, তিনটহরী ইউপি চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম বাবুল, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মো. আরব আলী, মো. এম.কে. আজাদ, মো. রফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্রেসক্লাব সভাপতি মো. মাঈন উদ্দীন, বিএনপি নেতা এম.এ. করিম, মো. এনামুল হক, মো.মজিবুল হক বাহার, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যন ও বিএনপি নেতা এম.এ.কাদের, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মো. সামায়ন ফরাজী সামু, উপজেলা গ্রাম ডাক্তার এসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. অমর কান্তি দত্ত, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি ও প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নানসহ সকল রাজনৈতিক দল ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক,অভিভাবক, ছাত্ররা নিহতের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে শোকাহত পরিবার-পরিজনকে সমবেদনা জানান।

নিহতের লাশ বাড়িতে পৌছা মাত্রই পূর্ব থেকে জড়ো হওয়া শোকাহত লোকজনের ভীড় সামলাতে হিমশিম খেতে হয়েছে। এ সময় প্রশাসনিক কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গরা শোকাহত পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলেন এবং নিহতের পরআত্মার শান্তি কামনা করেন।

নিহত রমিজ ১৯৯১ সালে মানিকছড়ির‘রাণী নিহার দেবী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি ও ফটিকছড়ি ডিগ্রি কলেজ থেকে এইস.এস.সি পাস করে ১৯৯৪ সালে শিক্ষাবঞ্চিত নিজ এলাকা ডাইনছড়িতে প্রথম নি¤œমাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন।
এদিকে রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় হাজােরা জনতার উপস্থিতিতে প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্টিত হয় তাঁর সর্বশেষ কর্মস্থল ডাইনছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। জানাজার আগে সারিবদ্ধভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে প্রিয় শিক্ষককে দেখেন ছাত্র-ছাত্রীরা। এ সময় শিক্ষার্থীদের কান্নায় উপস্থিত জনতা ও পরিবেশ ভারী হয়ে উঠে। এর পর উপস্থিত উপজেলার শীর্ষ প্রশাসনিক কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি,রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ,অভিভাবক ও সূধীজন এবং সহপাঠিরা জানাজা পূর্ব সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে শিক্ষক রমিজ মিয়ার স্মৃতিচারণ করেন এবং তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা করেন। এ সময় উপস্থিত জনতার বুকফাটা কান্নায় পরিবেশ ভারী হয়ে উঠে।

বেলা ১১টায় পান্নাবিল জামে মসজিদে অনুষ্টিত হয় দ্বিতীয় জানাজা। সেখানেও সহ¯্রাধিক মুসল্লির উপস্থিতিতে জানাজা শেষে সামাজিক কবরস্থানে মা-বাবা’র পাশে তাকে দাফন করা হয়।

এদিকে নিহতের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ডাইনছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়য়ে ৩ দিনের শোক দিবস ঘোষণা করেছেন শিক্ষকরা।

জাতীয় পতাকার পাশাপাশি অর্ধনির্মিত কালো পতাকা উত্তোলনসহ ছাত্র-শিক্ষক ও অভিভাবকরাও বুকে কালো ব্যাজ ধারণ করেছেন ।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT