ভ্যাকসিন নিতে আগে রেজিস্ট্রেশনের আহবান হাসপাতালগুলোর - CTG Journal ভ্যাকসিন নিতে আগে রেজিস্ট্রেশনের আহবান হাসপাতালগুলোর - CTG Journal

বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১১:০৫ অপরাহ্ন

        English
ভ্যাকসিন নিতে আগে রেজিস্ট্রেশনের আহবান হাসপাতালগুলোর

ভ্যাকসিন নিতে আগে রেজিস্ট্রেশনের আহবান হাসপাতালগুলোর

দুই দিন ধরে অন-স্পট রেজিস্ট্রেশনের কারণে রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে দৈনিক সক্ষমতার তুলনায় বেশি মানুষকে ভ্যাকসিন দিতে হচ্ছে। এতে ভ্যাকসিন প্রদানের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।ছবি-ব্লুমবার্গ

হাসপাতালগুলোতে ‘অন-স্পট’ রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ভ্যাকসিন গ্রহীতার সংখ্যা বাড়ছে। দুই দিন ধরে অন-স্পট রেজিস্ট্রেশনের কারণে রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে দৈনিক সক্ষমতার তুলনায় বেশি মানুষকে ভ্যাকসিন দিতে হচ্ছে। এতে ভ্যাকসিন প্রদানের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার কারণে আগে রেজিস্ট্রেশন করার তাগিদ দেন তারা। 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের আটটি বুথে দিনে ১,২০০ মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়ার কথা। কিন্তু বুধবার সেখানে ১,৮৩৪ জন মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। এর আগের দিন সেখানে ভ্যাকসিন নিয়েছেন ১,৪৯৭ জন। 
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুলফিকার আহমেদ আমিন দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডকে বলেন, ‘অন-স্পট রেজিস্ট্রেশন এখন আমাদের সক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে। এটি একটি বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। এতে প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। প্রক্রিয়াবিহীন হয়তো একশো মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া যায়, হাজার হাজার মানুষকে দেয়াতো সম্ভব নয়’।

জুলফিকার আহমেদ আমিন বলেন, ‘আজ আমাদের হাসপাতালে নির্ধারিত তালিকার বাইরে চারশোর বেশি মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। জানি না আগামীকাল (আজ বৃহস্পতিবার) কতজন আসবে, কত ভ্যাকসিন আনবো। এভাবে সুন্দর ব্যবস্থাপনাটাই নষ্ট হয়ে যাবে’।

সোমবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, কেউ রেজিস্ট্রেশন করতে ব্যর্থ হলে সে যদি জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে টিকাদান কেন্দ্রে যান, ওখানে রেজিস্ট্রেশন করে টিকা দিতে পারবেন, সেই ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে খতিয়ে দেখা হবে, তিনি কেন রেজিস্ট্রেশন করেননি।

প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনার পর থেকে হাসপাতালগুলোতে অন-স্পট রেজিস্ট্রেশন করে ভ্যাকসিন নেয়ার হার বাড়ছে।

মোহাম্মদপুর ফার্টিলিটি সেন্টারের পরিচালক ডা মনিরুজ্জামান সিদ্দিকি বলেন, ‘জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে আসলেই ভ্যাকসিন দেয়ার এই নির্দেশনার পর মঙ্গলবার থেকে আমাদের এখানে চাপ অনেক বেড়ে গেছে। এখন স্পট রেজিস্ট্রেশন করেই অনেকেই ভ্যাকসিন দিতে চাচ্ছে। তবে সেটি আমাদের জন্য কঠিন হয়ে যাচ্ছে’।

তিনি বলেন, ‘যাবতীয় আয়োজন আমরা করেছি, এনআইডি নিয়ে আসলে আমরা রেজিস্ট্রেশন করে দিচ্ছি। কিন্তু তারপরও অনুরোধ থাকবে যাদের সুযোগ আছে , শিক্ষিত জনগোষ্ঠী তিন চার মিনিট সময় ব্যয় করে নির্ধারিত তারিখে ভ্যাকসিন নিতে আসুন’।   

বাংলাদেশে গত ৭ই ফেব্রুয়ারি থেকে গণ টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে এবং সারা দেশের ১০০৫টি কেন্দ্রে টিকাদান চলছে।  সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলো ব্যতীত ২,৪০০ টি দল প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত নাগরিকদের টিকাপ্রদানের সুবিধা দিয়ে যাচ্ছে। প্রথম পর্যায়ের এ টিকাদান কর্মসূচী চলবে ৭ই মার্চ পর্যন্ত। 

এদিকে বেসরকারি খাতে ভ্যাকসিন সেবা দেয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বুধবার বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ অ্যাসো্সিয়েশনের উদ্যোগে ‘জাতীয় কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম : বেসরকারি খাতের সম্পৃক্ততা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বেসরকারি খাত এখন ভ্যাকসিন সেবা দিতে চায়, এটা অনেক আনন্দের খবর। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে বেসরকারি খাতে ভ্যাকসিন দেয়ার কথা বিবেচনা করবো’।

টিকা প্রদানের প্রথম পর্যায়ে দেশের ৩৫ লাখ লোককে ভ্যাকসিন দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। 

৪০ বা তার বেশি বয়সীরা এবং ১৯টি পেশার সম্মুখসারির যোদ্ধারা সরকারের ওয়েব পোর্টাল www.surokkha.gov.bd এর মাধ্যমে ভ্যাকসিনের জন্য নিবন্ধন করতে পারবেন। বুধবার বিকাল সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত ৯,০৪০০০০ জন টিকা নিতে নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন।  

বুধবার ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৩০ কূটনীতিবিদ

ঢাকায় অবস্থানরত বিদেশি কূটনীতিকদের জন্য করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি শুরু করেছে সরকার।

বুধবার বিকালে মহাখালীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট হাসপাতালে এই টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।

প্রথম দিনে সেখানে ঢাকায় ডিপ্লোমেটিক কোরের ডিন ভ্যাটিক্যান সিটির রাষ্ট্রদূতের পাশাপাশি ভারত, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, জার্মানি, তুরস্ক, ফ্রান্স, ইতালি, অস্ট্রেলিয়াসহ বিভিন্ন দেশের মিশন প্রধানসহ প্রায় ৩০ কূটনীতিক ভ্যাকসিন নেন।

ভ্যাকসিন নিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনও।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার বলেন, বাংলাদেশে যতটি দেশের কূটনীতিকরা আছেন, সকলের জন্য আমরা আলাদাভাবে এখানে আয়োজন করেছি। পর্যায়ক্রমে ২০০০ জন কূটনীতিককে এ ভ্যাকসিন দেয়া হবে।

কূটনীতিকদের টিকা দেওয়ার জন্য শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউটে সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন নির্দিষ্ট করে দেওয়া হবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT