ভেজাল পণ্য উৎপাদনের দায়ে ৪ জনের ১৪ বছর করে জেল - CTG Journal ভেজাল পণ্য উৎপাদনের দায়ে ৪ জনের ১৪ বছর করে জেল - CTG Journal

রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৬:৩০ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
মামুনুল গ্রেপ্তারের পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের নিরাপত্তা জোরদার থানচিতে আফিমসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক করোনায় আক্রান্তরা দ্রুত মারা যাচ্ছেন: আইইডিসিআর করোনা চিকিৎসায় ভ্রাম্যমাণ মেডিক্যাল টিম গঠন করুন: জাফরুল্লাহ হেফাজত নেতা মাওলানা আজিজুল ৭ দিনের রিমান্ডে মানিকছড়িতে ভিজিডি’র চাউল কালোবাজারে! নিন্মমানের পচা ও র্দুগন্ধযুক্ত সিদ্ধ চাউল বিতরণে ক্ষোভ ২১২টি পূর্ণাঙ্গ আইসিইউ বেড নিয়ে চালু হলো দেশের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতাল এলোমেলো হেফাজত, এখনই ‘কর্মসূচি নয়’ ২৪ ঘণ্টায় ১০২ মৃত্যুর রেকর্ড হেফাজতের ঢাকা মহানগর সভাপতি জুনায়েদ আল হাবিব রিমান্ডে করোনা পজিটিভ হওয়ার একদিনের মধ্যেই কারাবন্দির মৃত্যু যেভাবে গ্রেফতার হলেন মামুনুল হক
ভেজাল পণ্য উৎপাদনের দায়ে ৪ জনের ১৪ বছর করে জেল

ভেজাল পণ্য উৎপাদনের দায়ে ৪ জনের ১৪ বছর করে জেল

ভেজাল সরিষার তেল, এনার্জি ড্রিংকস, ম্যাংগো জুসসহ বিভিন্ন ভেজাল খাদ্য উৎপাদন,মজুদ এবং বিক্রির দায়ে চার জনকে ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন গাজীপুরের একটি আদালত। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক মাস করে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার গাজীপুর সিনিয়র স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল বিচারক একেএম এনামুল হক ওই রায় দেন।

দণ্ডিতরা হলেন, গাজীপুরের জয়দেবপুরের মাসুদ (৩০),আলম হোসেন (৩০) ও শাহ আলম (২৬) এবং জাজর এলাকার নাহিদ হাসান (২৮)। রায় ঘোষণার সময় আলম হোসেন ছাড়া অন্যরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালতের পরিদর্শক রবিউল ইসলাম জানান,গাজীপুরের ডেগেরচালা এলাকায় এসিএল বেভারেজ অ্যান্ড ফুড লিমিটেড নাম দিয়ে একটি কারখানায় ভেজাল সরিষার তেল,লায়ন ম্যাংগো জুস ও এনার্জি ড্রিংকসসহ বিভিন্ন ভেজাল খাদ্য উৎপাদন,মজুদ ও বিক্রি করে আসছিল। গাজীপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ২০১১ সালের ৯ এপ্রিল সেখানে অভিযান চালিয়ে ওই চারজনকে আটক করে। এছাড়া কারখানা থেকে বিপুল পরিমাণ ভেজাল পণ্য ও অন্যান্য মালামাল জব্দ করে। এ ব্যাপারে এসআই জহিরুল ইসলাম বাদী হয়ে জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

আদালতে দীর্ঘ শুনানির পর বৃহস্পতিবার বিচারক রায় ঘোষণা করেন। তবে দোষী সাব্যস্ত না হওয়ায় ওই মামলার এজাহারভুক্ত আসামি ওমর ফারুককে খালাস দেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষে পিপি অ্যাডভোকেট হারিছ উদ্দিন আহম্মদ এবং আসামি পক্ষে অ্যাডভোকেট মুনীম খান ও অ্যাডভোকেট আলেয়া আক্তার মামলা পরিচালনা করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT