বিবিসির রিপোর্ট ভুল, ভাসমান রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে - CTG Journal বিবিসির রিপোর্ট ভুল, ভাসমান রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে - CTG Journal

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
দিনে সাইকেল চুরি, রাতে ইয়াবা বিক্রি সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ ১৯ দিনে জামিনে মুক্ত ৩৩ হাজার কারাবন্দি ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে? পানছড়িতে ভেস্তে যাচ্ছে এলজিইডি’র ১ কোটি ৬২ লাখ টাকার তীর রক্ষা প্রকল্প: মরে যাচ্ছে ঘাস, তীরে ধরেছে ফাটল খালেদা জিয়ার বিদেশযাত্রা নিয়ে নতুন হিসাব-নিকাশ চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় কাপ্তাইয়ে বিএনপির দোয়া ও ইফতার মাহফিল চৈতন্য গলির জুয়ার আস্তানায় পুলিশের হানা, আটক ১৪ সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ রাউজানে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার বাংলাদেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা
বিবিসির রিপোর্ট ভুল, ভাসমান রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে

বিবিসির রিপোর্ট ভুল, ভাসমান রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে

সুমদ্রে ভাসমান রোহিঙ্গাদের নিয়ে সম্প্রতি বিবিসির এক প্রতিবেদনের তথ্যগত ভুলের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে বাংলাদেশের। বিবিসির প্রতিবেদনে ভুল করে বলা হয়েছে— ‘একদল রোহিঙ্গা বাংলাদেশের সমুদ্রসীমায় ভাসমান অবস্থায় রয়েছে এবং তাদেরকে উদ্ধারের জন্য জাতিসংঘ আহ্বান জানিয়েছে।’ বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে,এই তথ্য সঠিক নয়,ভুল।ভাসমান রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে।

 বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘জাতিসংঘের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পরিষ্কার করে বলা ছিল যে, জাহাজে রোহিঙ্গারা আছে সেটি আন্দামান সমুদ্রে। ওই সমুদ্র বঙ্গোপসাগরের দক্ষিণ-পূর্বে, মিয়ানমারের দক্ষিণে,থাইল্যান্ডের পশ্চিমে এবং ভারতের আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের পূর্বে অবস্থিত।’

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ‘জাহাজটি বর্তমানে যে অবস্থানে রয়েছে,সেটি বাংলাদেশ থেকে এক হাজার ৭০০ কিলোমিটার,মিয়ানমার থেকে ৪৯২ কিলোমিটার, থাইল্যান্ড থেকে ৩৬৩ কিলোমিটার, ইন্দোনেশিয়া থেকে ২৮১ কিলোমিটার ও ভারতের থেকে ১৪৭ কিলোমিটার দূরে। এটি পরিষ্কার যে, জাহাজটির অবস্থান বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে এবং অন্যান্য দেশগুলো জাহাজটির অনেক কাছে।’

বিজ্ঞপ্তিতে আরও  বলা হয়, ‘যে দেশের সমুদ্রসীমায় এ ধরনের জাহাজ ভাসমানভাবে অবস্থান করবে, সেটি উদ্ধার করার দায়িত্ব ওই দেশের। ওই দেশগুলোর উচিত তাদের যে আন্তর্জাতিক দায়বদ্ধতা আছে, সেটি যেন তারা পূরণ করে।’

‘বাংলাদেশ তার আন্তর্জাতিক দায়দ্ধতার প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধাশীল। এখানে উল্লেখ্য যে,এর আগে অন্য দেশের সুমদ্রসীমায় যখন রোহিঙ্গারা অসহায় অবস্থায় ভাসছিল, তখন বাংলাদেশ সরকার অন্য দেশের সুমদ্রসীমানা থেকে তাদেরকে উদ্ধার করেছিল।’

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT