বান্দরবান পৌর নির্বাচন সম্পন্ন, ভোট কেন্দ্র গুলোতে ভোটারদের উপচে পড়া ভিড় - CTG Journal বান্দরবান পৌর নির্বাচন সম্পন্ন, ভোট কেন্দ্র গুলোতে ভোটারদের উপচে পড়া ভিড় - CTG Journal

মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
রাষ্ট্র যখন ভাবমূর্তি সংকটে বেসরকারি খাতকে টিকা দেবে না সরকার স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন শুরু করলো বিএনপি, বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা ইন্দো-প্যাসিফিকে নিরাপত্তা ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কাজ করতে চায় না বাংলাদেশ বেনাপোল বন্দর দিয়ে ২০১৯ সালেই ‘পালায়’ পিকে হালদার সব ভালো কাজে সাংবাদিকদের পাশে চান রাঙামাটির নতুন ডিসি ইয়াবাপাচারকারী শ্যামলী পরিবহনের চালক সুপারভাইজার হেলপারের কারাদণ্ড বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বচ্ছতা আনতে নীতিমালা হচ্ছে মহালছড়িতে পাহাড় কাটার দায়ে জরিমানা সরকারি ৩ ব্যাংকে নতুন এমডি মানিকছড়িতে শিশুর আত্মহত্যা করোনা আমাকে একরকম বন্দি করে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী
বান্দরবান পৌর নির্বাচন সম্পন্ন, ভোট কেন্দ্র গুলোতে ভোটারদের উপচে পড়া ভিড়

বান্দরবান পৌর নির্বাচন সম্পন্ন, ভোট কেন্দ্র গুলোতে ভোটারদের উপচে পড়া ভিড়

মো. শাফায়েত হোসেন, বান্দরবান : কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই বান্দরবান পৌরসভা নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। রবিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। ৯টি ওয়ার্ডের ১৩টি কেন্দ্রের ৮১টি বুথে এই ভোটগ্রহণ শুরু এবং বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে। বান্দরবানে এই প্রথম ইভিএম মেশিনের মাধ্যমে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকাল থেকেই ভোট দেওয়ার জন্য কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে, এর মধ্যে নারী ভোটারদের সংখ্যা বেশি। বান্দরবান পৌর নির্বাচনী এলাকায় উৎসবমুখর পরিবেশ ভোট গ্রহন শেষ হয়। এবারের পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামীলীগ, বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলে সর্বমোট ৫জন মেয়র প্রার্থী অংশ নিয়ে আর প্রথমবারে ইভিএমে ভোট দিয়ে সন্তুুষ্টি প্রকাশ করে সকলে।

সকাল ১০টায় বান্দরবান সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামীলীগ মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ ইসলাম বেবী ভোট প্রদান করে। এরপরে সকাল সাড়ে ১০টায় বান্দরবান সরকারী কলেজ কেন্দ্রে ভোট প্রদান করে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ জাবেদ রেজা। এসময় তিনি ভোটের কার্যক্রমকে সুষ্ঠ দাবি করলে ও ভোটারদের ভোট প্রদান কার্যক্রম ধীরগতি বলে জানান। সকাল ১১টায় বান্দরবান ডনবস্কো উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে ভোট প্রদান করেন পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি ভোট প্রদান করে সাংবাদিকদের সাথে আলাপ কালে বলেন, প্রথমবারের মত এই ইভিএম মেশিনের মাধ্যমে ভোট গ্রহন কার্র্যক্রম নিয়ে সন্তুুষ্টি প্রদান করেন এবং বলেন, এই ইভিএম মেশিনের মাধ্যমে ভোট গ্রহনের ফলে সকলে তাদের নিজ নিজ ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারছে এবং জনগণের ভোটে যোগ্য ও সৎ ব্যক্তি জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হবে।

এদিকে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে কোন কেন্দ্রে অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। বিকাল ৪টার পর ভোট কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে কেন্দ্রে ভোট গননা শুরু হয়। পৌর সভার ২৯ হাজার ৭শত ২৯জন ভোটার রয়েছে।এর মধ্যে নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামীলীগ থেকে বর্তমান মেয়র মো.ইসলাম বেবী,ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপি থেকে সাবেক মেয়র মোহাম্মদ জাবেদ রেজা,লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টি মোহাম্মদ শাহজান,নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে পার্বত্য চট্রগ্রাম নাগরিক পরিষদের নাছিরুল আলম এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী বিধান লালা মোবাইল প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে ছিলেন। ৩৬জন কাউন্সিলর প্রার্থী ছিলেন নির্বাচনী মাঠে। সকাল ৮টা থেকে দেখা যায় ভোটারদের দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট দিতে। তবে প্রতিটি কেন্দ্রে পুরুষ ভোটাররের চেয়ে মহিলা ভোটারের উপস্থিতি ছিলো বেশি। তবে নতুন প্রজন্মের একাধিক ভোটার বলেন, নতুন ভোটার হিসেবে শান্তিপূর্ণভাবে ইবিএম এর মাধ্যমে ভোট দিতে পেরে ভালো লেগেছে।

নতুন ভোটার সাইফুল ইসলাম বলেন, ভোটের পরিবেশ সুন্দর। আমরা দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাড়িয়ে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়েছি। ভোট দিতে কোন অসুবিধে হয়নি। নাজমুন নাহার বেগন বলেন, এই প্রথম ইভিএম এর মাধ্যমে ভোট দিয়েছি কোন ধরণে সমস্যায় পড়তে হয়নি, ইবিএম এর মাধ্যমে ভোট দেওয়াটা মনে হয় অনেক সহজ হয়েছে। হালিমা আক্তার শেলী বলেন, প্রথমবারের মতো ইভিএম এর মাধ্যমে ভোট দেওয়া নিয়ে অনেক কৌতুহল ছিল,আমরা সকলেই আশা করেছিলাম যে কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে পারব। যেমন আশা করেছিলাম ঠিক তেমনি হয়েছে। আমরা অত্যান্ত সহজ ভাবে ও শান্তিপূর্ণভাবে আমাদের পছন্দের প্রার্থীকে মূল্যবান ভোট দিতে পেরেছি।

বান্দরবানের রির্টানিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, বান্দরবান পৌরসভা নির্বাচনে শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন,নিবাচন চলাকালে ১০জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৪ প্লাটুন বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাব ও আনসার সদস্যরা দায়িত্ব পালন করেন।

বান্দরবান পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ৫জন,সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৭জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৯ জন প্রার্থী প্রতিদন্ধিতা করেছে আর পৌর এলাকায় মোট ভোটার রয়েছে ২৯ হাজার ৭শত ২৯জন।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT