ফ্রিজের বাসি মাংস বিক্রি হচ্ছে তাজা মাংসের নামে - CTG Journal ফ্রিজের বাসি মাংস বিক্রি হচ্ছে তাজা মাংসের নামে - CTG Journal

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১০:০৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
দিনে সাইকেল চুরি, রাতে ইয়াবা বিক্রি সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ ১৯ দিনে জামিনে মুক্ত ৩৩ হাজার কারাবন্দি ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে? পানছড়িতে ভেস্তে যাচ্ছে এলজিইডি’র ১ কোটি ৬২ লাখ টাকার তীর রক্ষা প্রকল্প: মরে যাচ্ছে ঘাস, তীরে ধরেছে ফাটল খালেদা জিয়ার বিদেশযাত্রা নিয়ে নতুন হিসাব-নিকাশ চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় কাপ্তাইয়ে বিএনপির দোয়া ও ইফতার মাহফিল চৈতন্য গলির জুয়ার আস্তানায় পুলিশের হানা, আটক ১৪ সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ রাউজানে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার বাংলাদেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা
ফ্রিজের বাসি মাংস বিক্রি হচ্ছে তাজা মাংসের নামে

ফ্রিজের বাসি মাংস বিক্রি হচ্ছে তাজা মাংসের নামে

চলতি রমজান ও আসন্ন ঈদকে কেন্দ্র করে হিমায়িত গরুর মাংস চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে তাজা মাংসের নামে, কোন দোকানে শিশুখাদ্যে দেওয়া হচ্ছে ক্ষতিকর রং আবার কোথাও মুরগী জবাইয়ের পর তা প্রসেস করা হচ্ছে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে। সব মিলিয়ে অনিয়মের যেন শেষ নেই। নগরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এমন অনিয়মের দায়ে ৯টি প্রতিষ্ঠানকে ৮১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার (৪ মে) নগরের টেকনিক্যাল মোড়, ঝাউতলা বাজার, বড় পোল আনন্দ বাজার, বন্দরটিলা সহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব জরিমানা করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধকিার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় র্কাযালয়ের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ফয়েজ উল্লাহ, সহকারী পরিচালক (মেট্রো) পাপিয়া সুলতানা লিজা ও চট্টগ্রাম জেলা র্কাযালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামানের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

ভোক্তা অধিদপ্তরের দেয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, হিমায়িত মাংসকে তাজা মাংস বলে বিক্রি করায় খুলশী ঝাউতলা বাজারের মোহাম্মদ রাজা সওদাগরকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মসলায় কৃত্রমি রং ব্যবহার করায় ৩০ হাজার জরমিানা করা হয়েছে ‘অপু ও একক’ নামের মসলা মালিককে। এসময় ধ্বংস করা হয়েছে প্রায় এক কেজি কৃত্রিম রং মেশানো মসলা।

তাছাড়া দোকানে অনুমোদিত রং রাখায় বন্দর থানার আনন্দ বাজারের আব্দুল গফুর শাহ ট্রেডার্সকে জরিমানা করা হয়েছে ১৫ হাজার টাকা। এসময় ধ্বংস করা হয় উদ্ধার হওয়া কৃত্রিম রং। একই এলাকায় বেশি দামে এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার বেশি দামে বিক্রি করায় জাহাঙ্গীর ট্রেডার্সকে ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করায় বেলাল স্টোরকে জরিমানা করা হয় দেড় হাজার টাকা। একইভাবে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে মুরগী প্রসেস, মূল্যতালিকা না টাঙানোর দায়ে মীম পোল্ট্রিকে ৫ হাজার টাকা ও হাশমির দোকানকে দেড় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। 

অন্যদিকে উৎপাদন ও মেয়াদবিহীন শিশুখাদ্য, আইসক্রিম, ময়দা সংরক্ষণ ও মূল্যতালিকা না রাখার দায়ে ইডপিজেড থানার নয়ারহাটের তাম্মি স্টোরকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT