পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাপসহ পালাল দুই জুয়াড়ি! - CTG Journal পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাপসহ পালাল দুই জুয়াড়ি! - CTG Journal

সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৬:১৪ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর টার্গেটে আরও দুই ডজন হেফাজত নেতা আবারও চিকিৎসক দম্পতিকে জরিমানা ভার্চুয়াল কোর্টে জামিন পেয়ে কারামুক্ত ৯ হাজার আসামি লকডাউনের পঞ্চম দিনে ১০ ম্যাজিস্ট্রেটের ২৪ মামলা ওমানের সড়কে প্রাণ গেলো তিন প্রবাসীর, তারা রাঙ্গুনিয়ার বাসিন্দা একই কেন্দ্রে টিকা না নিলে সার্টিফিকেট মিলবে না মামুনুলের বিরুদ্ধে অর্ধশত মামলা, সহসাই মিলছে না মুক্তি ফিরতি ফ্লাইটের টিকিট পেতে সৌদি প্রবাসীদের বিশৃঙ্খলা সেরে ওঠা কোভিড রোগীদের জন্য কি ভ্যাকসিনের এক ডোজই যথেষ্ট? মানিকছড়িতে ভিজিডি’র চাল বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশ নিরাপদ কৌশল লকডাউন: স্বাস্থ্য অধিদফতর ৩৬ লাখ পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেবেন প্রধানমন্ত্রী
পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাপসহ পালাল দুই জুয়াড়ি!

পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাপসহ পালাল দুই জুয়াড়ি!

কুড়িগ্রামের রৌমারী থানা পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাপ পরা অবস্থায় দুই জুয়াড়ির পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালালে দীর্ঘ ৬ ঘণ্টায়ও পালিয়ে যাওয়া দুই জুয়াড়িকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তবে ঘটনাস্থল থেকে স্কুল ছাত্রসহ আট জনকে গ্রেপ্তার করে আনে পুলিশ।

আজ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার ঘুঘুমারী এলাকায় একটি জুয়ার আসরে ওই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে জানা গেছে, উপজেলার চরশৌলমারী ইউনিয়নের ঘুঘুমারী এলাকায় একটা মেলার আয়োজন করে স্থানীয়রা। দুপুর ১২টার দিকে রৌমারী থানার এএসআই আবু জাফর দুই কনস্টেবলকে নিয়ে ওই মেলায় উপস্থিতি হয়। পুলিশ জুয়ার আসর ভেঙ্গে না দিয়ে নূর আলম (২২) ও রব্বানী মিয়া (২১) নামের দুই জুয়াড়িকে আটক করে হ্যান্ডকাপ পড়ায়। এ সময় আরো জুয়াড়িকে আটক করতে গেলে এক পুলিশ সদস্যের হাত থেকে হ্যান্ডকাপ পড়া অবস্থায়ই ওই দুই জুয়াড়ি পালিয়ে যায়।

এ খবর থানায় পৌঁছানোর পর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রৌমারী সার্কেল) মাহমুদ হাছানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মেলায় আগতদের এলোপাথারি ভাবে মারপিট শুরু করে। এ সময় মেলায় থেকে শহর আলী (৪০), সমেস আলী (২৯), রুবেল মিয়া (১৮), বেলাল হোসেন (১৭), সাকিল হোসেন (১৮), সাইফুল ইসলাম (২৪), শাহীন আলম (১৯) ও ছমেদ আলী (৩০) নামের ৮জনকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশ জানায় স্থানীয়দের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত ওই মেলার কোনো অনুমতি নেওয়া ছিল না। জুয়ার আসর সরিয়ে না দিয়ে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করতে পারেন কিনা-এমন প্রসঙ্গে জানতে চাইলে রৌমারী সার্কেলের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদ হাছান ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন সাংবাদিকদের ওপর। তিনি বলেন, আপনারা কি পারেন লেখেন। আমাদের নাম লিখতে পারবেন না। আর কোনো তথ্যও আপনাদের দিব না।

ওই ঘটনা প্রসঙ্গে সংশ্লিষ্ট এলাকা চরশৌলমারী ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক জানান, কোনো অনুমতি না নিয়ে ওই মেলা ও জুয়ার আসরের আয়োজন করা হয়েছিল। পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাপসহ দুই জুয়াড়ি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা আমিও শুনেছি।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম বলেন, এধরনের কোনো ঘটনা আমাকে জানানো হয়নি। আমি খোঁজ নিচ্ছি।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT