পানছড়ির ছনটিলা সড়কে ৩০ বছরেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি - CTG Journal পানছড়ির ছনটিলা সড়কে ৩০ বছরেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি - CTG Journal

শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:২৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
নির্বাচনিসহ মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ৮২ লাখ মানুষ পরমাণু শক্তি আমরা শান্তির জন্য ব্যবহার করবো: প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ায় করোনার ধাক্কা সামলানোর শীর্ষে বাংলাদেশ স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শারদীয়া দুর্গাপুজা উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে মন্দিরে আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন সেনা জোন রামগড়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথে কামাল ‘করোনা পরবর্তী পরিবেশ ও জলবায়ু সহনশীল পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা জরুরি’ ৬ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক কারাগারে জাতীয় পার্টির নতুন মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন ১১ নভেম্বর কাপ্তাই তথ্য অফিসের আয়োজন ‘এসো মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠে গল্প শুনি’
পানছড়ির ছনটিলা সড়কে ৩০ বছরেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি

পানছড়ির ছনটিলা সড়কে ৩০ বছরেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি

পানছড়ির ছনটিলা সড়ক

পানছড়ি (খাগড়াছড়ি ) প্রতিনিধি: ৩০ বছরেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি পানছড়ি বাজার থেকে ছনটিলা সড়কটির । স্থানীয় ভুক্তভোগিরা এমন অভিযোগই করে আসছে বছরের পর বছর। তাতেও লাভ হচ্ছেনা।

সরজমিনে দেখা যায়, ৬ কিলো মিটারের সড়কটির ৪ কিলো মিটার সড়কই খানাখন্দকে ভরা।পায়ে হেটে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও স্থানীয়রা সদরে আসছে ।


ইউপি মেম্বার আবদুল জব্বার বলেন, নব্বই দশকের মাঝামাঝি সময়ে টি এন্ড টি টিলার পাশ ঘেঁসে উপজেলা সদর হাসপাতালের সামনে দিয়ে বৃহৎ গ্রাম দমদম এলাকা হয়ে ছনটিলা ,কালানাল, আলীচানপাড়া,পুজগাং সড়ক নির্মান হয়। কালের বির্বতনে যোগাযোগ ও সামাজিক ব্যবস্থার উন্নয়ন হলেও উন্নতি হয়নি এ সড়কের।নিত্যদিনের যোগাযোগ ,মালামাল পরিবহন ,জরুরী প্রয়োজনে মুমুর্ষ রোগী,গর্ভবতী রোগী নিয়ে যেতে রোগীর অবস্থা আরো খারাপ হয়ে পড়ে। প্রশাসনের নাকের ডগায় এ রাস্তাটি যেন দেখার কেউ নেই।

ইট সলিং উঠে যাওয়া পানছড়ির ছনটিলা সড়ক

সিএনজি চালক ইব্রহিম,কামরুল হোসেন,গিয়াস উদ্দিন জানায়, এ সড়কে দমদম, সাওতাল পাড়া, কালানাল,আলী চান পাড়া, ছনটিলা সহ ছয়টি গ্রামের মানুষ চলাচল করে। প্রতিদিন কমপক্ষে ১০ টি সিএনজি নুন্যপক্ষে ৪ বার করে যাতায়াত করে। প্রায়ই সড়ক খাদে পড়ে সিএনজি উল্টে পড়ে দুর্ঘটনার পড়তে হয়।


আলীচান পাড়ার জগদীশ চাকমার সাথে কথা বললে, তিনি আক্ষেপ করে বলেন, এ গ্রাম সমুহে ৩টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি মাদ্রাসা সহ কয়েক হাজার মানুষের বসবাস। একমাত্র সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার কারনে অর্থনৈতিক ভাবে পিছিয়ে আছে ওই গ্রাম সমুহের মানুষ। সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো না থাকায় পরিবহন খরচ বেশী পরে,এতে আমাদের উৎপাদিত ফসলের নায্য দাম পাই না। অনেক সময় ফসল বাজার জাতও করতে পারিনা। ভোটের আগে অনেকেই প্রতিশ্রুতি দেয় সড়ক ঠিক করে দিবে। কিন্তু নির্বাচিত হওয়ার পর তাদের আর দেখা মিলে না, সড়কও হয় না।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী অরুন কুমার দাশের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ সড়কটির জন্য আমাকে এমপি মহোদয়ের ডিও লেটার এনে দেওয়া হয়েছে। আমিও পিডি স্যারের কাছে পাঠিয়েছি। তদবির ছাড়া কোন কাজ হয় না। এর জন্য তদবির করবে কে ? তদবির না থাকায় কাজটির অনুমোদন আসে নাই।

খানাখন্দকে ভরা পানছড়ির ছনটিলা সড়ক

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিজয় কুমার দেব বলেন, ছনটিলা সড়কটির যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো থাকলে অর্থনৈতিক ভাবে ছয়টি গ্রামের মানুষ উপকৃত হবে,পাশাপাশি এলাকাও অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাবে। কোন অদৃশ্য কারণে সড়কটির কাজ হচ্ছে না, জানা নাই। তবে এলাকা উন্নয়নে ও হাসপাতালের রোগী সেবার জন্য হলেও রাস্তাটির সংস্কার প্রয়োজন।

নটিলা সড়কটি সংস্কার করে এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করতে প্রশাসন ও নেতৃবৃন্দের কাছে জোর দাবী জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT