রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:২৬ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ও আটকে পড়া পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের বোঝা: প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনিসহ মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ৮২ লাখ মানুষ পরমাণু শক্তি আমরা শান্তির জন্য ব্যবহার করবো: প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ায় করোনার ধাক্কা সামলানোর শীর্ষে বাংলাদেশ স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শারদীয়া দুর্গাপুজা উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে মন্দিরে আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন সেনা জোন রামগড়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথে কামাল ‘করোনা পরবর্তী পরিবেশ ও জলবায়ু সহনশীল পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা জরুরি’ ৬ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক কারাগারে জাতীয় পার্টির নতুন মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন ১১ নভেম্বর
নিজেকে জনগণের সেবক মনে করি: প্রধানমন্ত্রী

নিজেকে জনগণের সেবক মনে করি: প্রধানমন্ত্রী

নিজেকে দেশের জনগণের সেবক বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আমিও একথা মনে করি যে আমি জনগণের সেবক। তাদের টাকায় বেতন নিই, তাদের টাকায় আমি চলি। তাই তাদের কতটুকু সেবা দিতে পারলাম সেটাই ভাবি।’

বৃহস্পতিবার শাহবাগে বিসিএস প্রশাসন একাডেমি ভবনের আয়োজিত ১০২ ও ১০৩তম আইন ও প্রশাসন কোর্সের সমাপনী ও সনদ বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে তিনি ৭০ জন বিসিএস ক্যাডারদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন।

নবীন বিসিএস ক্যাডারদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জনগণের পাশে থেকে তাদের আস্থা অর্জন করতে হবে। জনগণকে সেবা দেওয়া এবং তাদের জীবন সুন্দর করার দিকে ‍দৃষ্টি দিতে হবে। প্রশাসনে উদ্ভাবনী ও জনগণকে সেবা দেওয়ার চিন্তা থাকতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘তৃণমূলে মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হলে সত্যিকার অর্থে দেশেই উন্নয়ন হবে। আপনারা যারা তৃণমূলে কাজ করতে যাবেন এই বিষয়টি মনে রাখবেন।’

শেখ হাসিনা, ‘আজ  সারাবিশ্বে আমাদের কেউ দরিদ্র দেশ বলে করুণা করে না,ভিন্ন দৃষ্টিতে দেখে না, ঝড়-বৃষ্টির দেশ ও সাহায্য চাইবার দেশ হিসেবে কেউ দেখে না। বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবেই মনে করে।’

প্রশিক্ষণের সীমাবদ্ধতার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পাঁচ মাসে কতটুকু আর শেখা যায়? আরও একটু সময় নিয়ে প্রশিক্ষণ দিলে বিষয়গুলো ভালোভাবে শিখতে পারবেন নবীনরা।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন,‘আজ যদি দেশ স্বাধীন না হতো, যারা বড় বড় পদে আছেন তারা কি এখানে থাকতে পারতেন? দেশ স্বাধীন হয়েছে বলেই আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি এসেছে, আপনারা বড় পদে চাকরি করতে পারছেন। জাতির পিতা বেঁচে থাকলে দেশকে উন্নত করতে ১০ বছরও সময় লাগতো না। স্বাধীন হওয়ার পর বাংলাদেশ যে মর্যাদা পেয়েছিল ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্টের পর তা ভূলণ্ঠিত হয়েছিল, দেশ পিছিয়ে গিয়েছিল। কেন পিছিয়ে গিয়েছিলাম- এটা মনে রাখতে হবে।’

তিনি আরও বলেন,‘যারা স্বাধীনতা চায়নি তারা ক্ষমতায় আসলে দেশ উন্নত হবে কিভাবে? ২১ বছর পর ক্ষমতায় এসে বাংলাদেশকে উন্নত করার ঘোষণা দিয়েছিলাম। আমরা জনগণের সেবক হিসেবে এসেছি। সেভাবেই কাজ করতে শুরু করি। মাঝে আবার একটি ছেদ ঘটলো। ২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসে আবার জনগণের সেবক হিসেবে কাজ শুরু করেছিলাম। ২০১৪ সালে শত প্রতিকূলতা মোকাবিলা করে ক্ষমতায় আসতে পেরেছি বলেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রয়েছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই মাটিতে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় থাকবে। মাদকের বিরুদ্ধে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া দরকার, কারণ বহু পরিবার মাদকের ছোবলে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে।’

অনুষ্ঠানে জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘প্রশাসন দক্ষ না হলে দেশ কখনোই এগিয়ে নেওয়া যাবে না। আমার বিশ্বাস বাংলাদেশ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তাতে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হবে।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক, জনপ্রশাসন সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এইচ এম আশিকুর রহমান প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT