দৃষ্টি ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার ষড়যন্ত্র সফল হবে না: খন্দকার মোশাররফ হোসেন - CTG Journal দৃষ্টি ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার ষড়যন্ত্র সফল হবে না: খন্দকার মোশাররফ হোসেন - CTG Journal

বুধবার, ১৬ Jun ২০২১, ০৭:৪৭ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
স্ত্রী-সন্তানসহ ৩ জনকে হত্যার কারণ অনুসন্ধানে পুলিশ সিনহা হত্যা মামলায় প্রদীপের জামিন শুনানি ২৭ জুন অর্থপাচারের অভিযোগ নিয়ে যা বলছে ‘বিগো’ ভারতের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ থাকবে আরও ১৬ দিন আমাকে ধর্ষণ এবং হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে: পরীমনি বিলাসিতা ও অনাহার: বৈষম্যে ভরা মহামারির দুই দিক ঢাকায় পৌঁছালো চীনা ভ্যাকসিনের আরও ৬ লাখ ডোজ রাজনীতি না চিকিৎসা, কী বেছে নেবেন খালেদা জিয়া সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলায় জামিন মিলেনি আসামির পার্বত্য উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান হলেন নিখিল কাপ্তাই পাওয়ার গ্রীড হতে চুরি হওয়া ২টি ব্যাটারীসহ ১ জন আটক গ্রেফতার এড়াতেই এএসআই সালাহ উদ্দিনকে হত্যা?
দৃষ্টি ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার ষড়যন্ত্র সফল হবে না: খন্দকার মোশাররফ হোসেন

দৃষ্টি ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার ষড়যন্ত্র সফল হবে না: খন্দকার মোশাররফ হোসেন

আপনারা ভোট ডাকাতি করেছেন, সম্পূর্ণ অনৈতিকভাবে জনগণের ঘাড়ে চেপে আছেন। এখন আবার আপনারা আগুন নিয়ে খেলছেন এবং এই আগুনেই আপনাদের হাত পুড়ে যাবে।বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। ফাইল ছবি (সংগৃহীত)

‘আমাদের দৃষ্টি কিন্তু এই স্বৈরাচারী সরকারের হাত থেকে জনগনকে মুক্ত করার দিকে, এই দৃষ্টি ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার ষড়যন্ত্র সফল হবে না’, বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। 

রবিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ‘জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম এবং খেতাব প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে’ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল ও মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।  

প্রধান অতিথির বক্তব্যে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আজ জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে এ সরকারের দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পরেছে। এ সরকারের কোন সাহস নেই আল জাজিরা, দি ইকোনোমিস্ট ও ডয়েচ ভেলের প্রচারিত সংবাদের তথ্য উপর ভিত্তি করে প্রতিবাদ করার। সরকার শুধু রাজনৈতিকভাবে প্রতিবাদ করে দায় সারতে চাচ্ছে। আর এখন জনগণের দৃষ্টিকে ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার জন্য জিয়াউর রহমানের খেতাব ইস্যু সামনে নিয়ে এসেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘জিয়াউর রহমানই প্রথম মুক্তিযুদ্ধের সূচনা করেছেন,পাকিস্তানি সৈন্যদের গ্রেপ্তার করে বাঙালী সৈন্যদের ছাড়িয়ে এনেছেন। যার নাম অনুসারে জেডফোর্স গঠন করা হয়েছে তখন। এখন জামুকা নামে আপনারা কারা? যারা খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আপনাদের কোন ইখতিয়ার নেই এই খেতাব বাতিলের’।   

এ সময় তিনি হুঁশিয়ারী জারি করে বলেন, ‘আপনারা ভোট ডাকাতি করেছেন, সম্পূর্ণ অনৈতিকভাবে জনগণের ঘাড়ে চেপে আছেন। এখন আবার আপনারা আগুন নিয়ে খেলছেন এবং এই আগুনেই আপনাদের হাত পুড়ে যাবে’।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম,স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়,কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল সৈয়দ ইবরাহিম খালিদ (অবঃ) বীর প্রতীক, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর হাফিজ উদ্দিন আহমদ (অবঃ) বীর বিক্রম, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফত, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল, বিএনপির নেতা ইশরাক হোসেন প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT