‘দণ্ডিত আসামি দিয়ে স্বাধীনতার অনুষ্ঠান উদ্বোধন মুক্তিযুদ্ধের প্রতি অসম্মান’ - CTG Journal ‘দণ্ডিত আসামি দিয়ে স্বাধীনতার অনুষ্ঠান উদ্বোধন মুক্তিযুদ্ধের প্রতি অসম্মান’ - CTG Journal

রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন

        English
‘দণ্ডিত আসামি দিয়ে স্বাধীনতার অনুষ্ঠান উদ্বোধন মুক্তিযুদ্ধের প্রতি অসম্মান’

‘দণ্ডিত আসামি দিয়ে স্বাধীনতার অনুষ্ঠান উদ্বোধন মুক্তিযুদ্ধের প্রতি অসম্মান’

দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত এক আসামিকে দিয়ে বিএনপি’র স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন মুক্তিযুদ্ধের প্রতি অসম্মান প্রদর্শন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আজ মঙ্গলবার (২ মার্চ) চট্টগ্রাম জেলার চট্টগ্রাম-বোয়ালমারী রুটে বিআরটিসির দোতলা বাস সার্ভিস উদ্বোধন কালে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন,  ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের মতো দেশের সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান একজন পলাতক আসামিকে দিয়ে উদ্বোধন করানোয় দেশবাসী বিস্মিত হয়েছে। দলে অনেক সিনিয়র নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা থাকতে টেমস নদীর পাড় থেকে অনুষ্ঠান উদ্বোধনে স্বাধীনতার প্রতি বিএনপির কমিটমেন্ট নিয়েই জনগণ এখন প্রশ্ন তুলছে। বিএনপি স্বাধীনতার ইতিহাসকে বিকৃতির মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধকে ভুলুণ্ঠিত করেছে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘বিএনপি উগ্র-সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে দেশে রাজনীতি করার সুযোগ করে দিয়ে কোন চেতনা বাস্তবায়ন করতে চায়? বিএনপির মুখে স্বাধীনতার চেতনা ভূতের মুখে রাম রাম ধ্বনির মতোই।’

বিএনপি দেশে গণতন্ত্র খুঁজে পায় না- দলটির নেতাদের এমন অভিযোগের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘তারা যখন নির্বাচনে জিতে, তখন এক কথা বলে। আর পরাজিত হলে বলে আরেক কথা। জনগণ ভোট না দিলেও তাদের জোর করে জিতিয়ে তবেই প্রমাণ করতে হবে দেশে গণতন্ত্র আছে!’

বিএনপি’র আন্দোলন নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সন্ত্রাস নির্ভরতায় বিএনপির আন্দোলনে মানুষ এখন আর সাড়া দেয় না। বরং মানুষ আতঙ্কগ্রস্ত হয় তাদের আন্দোলনের কথা শুনলে। বিএনপির ভোট কমার দায় নির্বাচন কমিশনের নয়, বরং তারা নিজেদের ব্যর্থতার দায় অন্যদের ওপর চাপাতে সবসময় সিদ্ধহস্ত।’

গাড়ি চালনায় নারীদের আগ্রহ বাড়ছে

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেশে গাড়ি চালনায় নারীদের আগ্রহ বাড়ছে। তাই নারীদের প্রশিক্ষণের ব্যপারে গুরুত্ব দেওয়া উচিত।’

মন্ত্রী বিআরটিসিকে সুনামের ধারায় ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্টের নির্দেশ দিয়ে বলেন, চট্টগ্রামসহ পুরোদেশে বাস পরিচালনার জন্য নতুন রুট চিহ্ণিত করে রুট সম্প্রসারণ করতে হবে।

চট্টগ্রাম বোয়ালখালি প্রান্তে এসময় উপস্থিত ছিলেন বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম, সংসদ সদস্য মোসলেম উদ্দিন আহমদ, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT