বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ও আটকে পড়া পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের বোঝা: প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনিসহ মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ৮২ লাখ মানুষ পরমাণু শক্তি আমরা শান্তির জন্য ব্যবহার করবো: প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ায় করোনার ধাক্কা সামলানোর শীর্ষে বাংলাদেশ স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শারদীয়া দুর্গাপুজা উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে মন্দিরে আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন সেনা জোন রামগড়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথে কামাল ‘করোনা পরবর্তী পরিবেশ ও জলবায়ু সহনশীল পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা জরুরি’ ৬ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক কারাগারে জাতীয় পার্টির নতুন মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন ১১ নভেম্বর
জেলা প্রশাসকের সাথে প্রতারণা করতে গিয়ে প্রতারকের কারাদণ্ড

জেলা প্রশাসকের সাথে প্রতারণা করতে গিয়ে প্রতারকের কারাদণ্ড

সিটিজি জার্নাল নিউজঃ পর্যটক হিসাবে গত ৪ মাসে বিভিন্ন জেলার জেলা প্রশাসকসহ ৮২ জন সরকারি কর্মকর্তার কাছ থেকে প্রত্যয়ন ও আর্থিক সহায়তা নিয়েছে মিজানুর। আজ রবিবার দুপুরে সে মাগুরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এসেছিল একই রকম প্রত্যয়ন ও আর্থিক সহায়তা নিতে। কিন্তু তার অসংলগ্ন কথাবার্তা ও সন্দেহজনক কাগজপত্রে পর্যটকের বদলে প্রতারক হিসাবে প্রমান পান জেলা প্রশাসক আতিকুর রহমান।

এ কারণে নির্বাহী ম্যাচিজস্ট্রেট খোরশেদ আলমের নেতৃত্বে গঠিত ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাকে ৭ দিনের কারাদণ্ড দেয়ার আদেশ দেয়া হয়েছে। মিজানুর সাতক্ষীরা জেলার সেনেরগাতি গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে। আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মাগুরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ঘটেছে এ ঘটনা।

ভ্রাম্যমা আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোরশেদ আলম চৌধুরী জানান, মিজানুর রহামনের কাছ থেকে বিভিন্ন জেলা প্রশাসক সহ উচ্চ পদস্থ কর্মকতাদের সাড়্গর ও সীলমহর সম্বলিত কাগজপত্র পাওয়া গেছে। যেগুলো দেখিয়ে বিভিন্ন জেলায় সে নিজেকে পর্যটক দাবী করে আর্থিক সহযোগিতা নিত। যা প্রকৃত অর্থে প্রতারনা।

একে/এম

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT