চার দফা দাবিতে আন্দোলনে চবি শিক্ষার্থীরা - CTG Journal চার দফা দাবিতে আন্দোলনে চবি শিক্ষার্থীরা - CTG Journal

শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ১১:৩৪ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
এক রাতে মিললো ১২ কোটি টাকার ইয়াবা ‘ওয়াজ-মাহফিলের নামে জাতিকে ঈমানহারা করছেন তাহেরী’ মানিকছড়িতে দুগ্ধগাভী পেলেন অভিভাবকহীন শিশু-কিশোর পরিবার নিবন্ধন ৪৯ লাখ, টিকা নিয়েছেন ৩৬ লাখের বেশি মানুষ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বাংলাদেশের উত্তরণে ভারত ‘খুশি’ এক বা দুই ডোজ যা-ই হোক, সহজলভ্য ভ্যাকসিন গ্রহণের পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের ফেনীতে একটি ভবনে বিস্ফোরণে মা ও দুই মেয়ে দগ্ধ বেরোবি’র বিশেষ উন্নয়ন প্রকল্পে প্রভাবমুক্ত ও নিরপেক্ষ তদন্ত হয়েছে: ইউজিসি রোজার আগেই ‘মাঠে নামবে’ গণফোরাম করোনাভাইরাস: দেশে আরও ১০ মৃত্যু, শনাক্ত ৫৪০ সংশোধন নয়, ২৬ মার্চের আগেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করুন: জাফরুল্লাহ চৌধুরী চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত আরও ৯২ জন
চার দফা দাবিতে আন্দোলনে চবি শিক্ষার্থীরা

চার দফা দাবিতে আন্দোলনে চবি শিক্ষার্থীরা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইআর) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষের পরীক্ষা গ্রহণসহ চার দফা দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে শিক্ষার্থীরা। একই দাবিতে প্রক্টরের মাধ্যমে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপিও প্রেরণ করেছে তারা।

রবিবার (৩ জানুয়ারি) বেলা ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে চার দফা দাবিতে এই অবস্থান কর্মসূচি শুরু হয়। প্রশাসনের আশ্বাসে দুপুর তিনটার দিকে এই কর্মসূচি শেষ হয়।

শিক্ষার্থীদের উত্থাপিত চার দফা দাবি হচ্ছে- জানুয়ারির ১০ তারিখের মধ্যে পরীক্ষার রুটিন দিতে হবে, পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর পর প্রয়োজনে অনলাইনে দ্বিতীয় বর্ষের ক্লাস শুরু করতেহবে, পরীক্ষা শেষ হওয়ার তিন মাসের মধ্যে পরীক্ষার রেজাল্ট দিতে হবে ও ইনস্টিটিউটের সেশন জট নিরসনে শিক্ষক নিয়োগ, ক্লাসরুম বৃদ্ধিসহ যাবতীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, ইতোমধ্যে প্রথম বর্ষে আমরা ২৪ মাস পার করেছি। এজন্য বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নেমেছি। এখন বিশ্ববিদ্যালয় ও আমাদের ইনস্টিটিউট বলছে তাদের পরীক্ষা নিতে সমস্যা নাই। প্রশাসন আমাদের থেকে দুই দিন সময় নিয়েছে। প্রশাসনের আশ্বাসে আমরা দুই দিনের জন্য অবস্থান কর্মসূচি থেকে সরে এসেছি।

এ ব্যাপারে প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া সিভয়েসকে বলেন,‌ ‌‘শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেছি। আমরা তাদের ব্যাপারটা নিরসনের জন্য আন্তরিকভাবে চেষ্টা করছি।’

প্রসঙ্গত, বিভিন্ন কারণে আইই‌আরের ২০১৯ সালের পরীক্ষা পিছিয়ে গত বছরের ২৫ মার্চ পরীক্ষার দিন ধার্য করে রুটিন প্রদান করা হয়। কিন্তু ১৭ তারিখ থেকেই করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হয়ে গেলে পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে গত ১৮ অক্টোবর স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রার বরাবর স্মারকলিপি প্রেরণ করে শিক্ষার্থীরা।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT