চাপরাশিরবাজারে পিবিআই, সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার তদন্ত শুরু - CTG Journal চাপরাশিরবাজারে পিবিআই, সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার তদন্ত শুরু - CTG Journal

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
দিনে সাইকেল চুরি, রাতে ইয়াবা বিক্রি সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ ১৯ দিনে জামিনে মুক্ত ৩৩ হাজার কারাবন্দি ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে? পানছড়িতে ভেস্তে যাচ্ছে এলজিইডি’র ১ কোটি ৬২ লাখ টাকার তীর রক্ষা প্রকল্প: মরে যাচ্ছে ঘাস, তীরে ধরেছে ফাটল খালেদা জিয়ার বিদেশযাত্রা নিয়ে নতুন হিসাব-নিকাশ চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় কাপ্তাইয়ে বিএনপির দোয়া ও ইফতার মাহফিল চৈতন্য গলির জুয়ার আস্তানায় পুলিশের হানা, আটক ১৪ সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ রাউজানে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার বাংলাদেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা
চাপরাশিরবাজারে পিবিআই, সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার তদন্ত শুরু

চাপরাশিরবাজারে পিবিআই, সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার তদন্ত শুরু

দায়িত্ব পেয়ে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজ্জাকির হত্যা মামলাটির তদন্তে কাজে নেমে পড়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) পিবিআই-র একটি দল নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে এসে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এলাকা পরিদর্শনে পিবিআই’র দলটির নেতৃত্ব দেন সংস্থাটির নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান মুন্সী। এসময় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) মামলাটি দায়েরের পর এটি থানা থেকে পিবিআইতে ন্যস্ত করা হয়।

এ বিষয়ে পিবিআই’র পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান মুন্সী জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তাসহ ঘটনাস্থল গিয়ে সেখানকার তথ্য ও ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। আমরা এ মামলার নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু তদন্তের চেষ্টা করছি এবং দ্রুততম সময়ের মধ্যে তদন্ত সম্পন্ন করা হবে।

পিবিআই এর তদন্ত দলটি চাপরাশিরহাট পূর্ব বাজারের ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর নিহতের বাড়িতে যান। তারা নিহতের পরিবারের সদস্য, স্থানীয় লোকজন এবং সংঘর্ষের সময় কর্মরত পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে কথা বলবেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) উপজেলার চাপরাশিরহাট পূর্ব বাজারে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।
এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশও কয়েক রাউন্ড টিয়ারসেল ও শর্টগানের গুলি ছুঁড়ে। ঘটনার ছবি ও ভিডিও ধারণ করতে গিয়ে ত্রিমুখী সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে গুলিবিদ্ধ হন সাংবাদিক মুজাক্কিরসহ ৬/৭ জন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাত ১০টা ৪৪ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান মুজাক্কির।

এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার সকালে নিহতের বাবা নোয়াব আলী মাস্টার বাদী হয়ে অজ্ঞাত একাধিক ব্যক্তিকে আসামি করে কোম্পানীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওইদিন রাতে মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT