মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৫:২৬ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ও আটকে পড়া পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের বোঝা: প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনিসহ মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ৮২ লাখ মানুষ পরমাণু শক্তি আমরা শান্তির জন্য ব্যবহার করবো: প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ায় করোনার ধাক্কা সামলানোর শীর্ষে বাংলাদেশ স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শারদীয়া দুর্গাপুজা উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে মন্দিরে আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন সেনা জোন রামগড়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পথে কামাল ‘করোনা পরবর্তী পরিবেশ ও জলবায়ু সহনশীল পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা জরুরি’ ৬ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক কারাগারে জাতীয় পার্টির নতুন মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন ১১ নভেম্বর
খাগড়াছড়িতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বি-বাষিক শিশুতোষ সহপাঠ্যক্রমিক অর্ন্তভুক্তি বিষয়ে পরামর্শ সভা

খাগড়াছড়িতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বি-বাষিক শিশুতোষ সহপাঠ্যক্রমিক অর্ন্তভুক্তি বিষয়ে পরামর্শ সভা

আবদুল মান্নান, মানিকছড়িঃ খাগড়াছড়িতে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিভাষিক শিশুতোষ বই সহপাঠ্যক্রমিক হিসেবে অর্ন্তভুক্তি বিষয়ে পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১৯ ডিসেম্বর মঙ্গলবার জেলা শহরের পর্যটন হল রুমে অনুষ্ঠিত এই সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী।
বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফাতেমা মেহের ইয়াসমিন, সেভ দ্যা চিলড্রেন’র প্রকল্প উপ-পরিচালক আকিদুল ইসলাম, প্রেসক্লাব সভাপতি জীতেন বড়–য়া এবং জাবারাং’র নির্বাহী পরিচালক মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন “বাংলাদেশ চিলড্রেন বুক ইনিসিয়েটিভ” প্রকল্পভূক্ত লক্ষীছড়ি, মানিকছড়ি, রামগড় ও মহালছড়ি উপজেলার উপজেলা শিক্ষা অফিসারবৃন্দ, উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টরবৃন্দ, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসারবৃন্দ, বিশিষ্ট সাংবাদিকগণ, প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকগণ, বিদ্যালয় ব্যবস্থা কমিটির প্রতিনিধিবৃন্দ এবং বিশিষ্ট ভাষা কমিটির সদস্যবৃন্দ।

সভায় সেভ দ্য চিলড্রেন এর প্রকল্প ব্যবস্থাপক দেবপ্রিয় চাকমা বলেন, দ্বিভাষিক শিশুতোষ বইয়ের প্রয়োজনীয়তা এবং সংগ্রহের উপায় বিষয়ে আলোচনা করেন।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী বলেন, সরকার পার্বত্য চুক্তি অনুযায়ী বিগত শিক্ষা বছর থেকে প্রাক-প্রাথমিক পর্যায়ে মাতৃভাষায় পাঠদানের পদক্ষেপ নিয়েছে।

আসন্ন শিক্ষাবর্ষে প্রশিক্ষিত শিক্ষকও নিশ্চিত করা হবে। কিন্তু শিক্ষকরা-বিভাগীয় কর্মকর্তারা যদি আন্তরিক হোন, তাহলে পাহাড়ের শিশুরা মাতৃভাষায় দক্ষ হয়ে উঠবে।
উন্নয়নকর্মী ডালিম কুমার ত্রিপুরা’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, দয়ানন্দ ত্রিপুরা।

সভায় মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহন করেন, মানিকছড়ি সুভাশীষ বড়–য়া, চাকমা ভাষা কমিটির সদস্য আনন্দ মোহন চাকমা, উন্নয়নকর্মী মো মো সে, মানিকছড়িরর সহকারি শিক্ষা অফিসার জবরুত খান, রামগড় উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার মিলিচিং মারমা, মানিকছড়ির এসএমসি সভাপতি জুলফিকার আলী, প্রধান শিক্ষক সন্দীপন চাকমা, সংবাদকর্মী প্রদীপ চৌধুরী এবং সমাজকর্মী জগদীশ ত্রিপুরা।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT