কোটা সংস্কার আন্দোলন যৌক্তিক: ঢাবি ভিসি - CTG Journal কোটা সংস্কার আন্দোলন যৌক্তিক: ঢাবি ভিসি - CTG Journal

সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর টার্গেটে আরও দুই ডজন হেফাজত নেতা আবারও চিকিৎসক দম্পতিকে জরিমানা ভার্চুয়াল কোর্টে জামিন পেয়ে কারামুক্ত ৯ হাজার আসামি লকডাউনের পঞ্চম দিনে ১০ ম্যাজিস্ট্রেটের ২৪ মামলা ওমানের সড়কে প্রাণ গেলো তিন প্রবাসীর, তারা রাঙ্গুনিয়ার বাসিন্দা একই কেন্দ্রে টিকা না নিলে সার্টিফিকেট মিলবে না মামুনুলের বিরুদ্ধে অর্ধশত মামলা, সহসাই মিলছে না মুক্তি ফিরতি ফ্লাইটের টিকিট পেতে সৌদি প্রবাসীদের বিশৃঙ্খলা সেরে ওঠা কোভিড রোগীদের জন্য কি ভ্যাকসিনের এক ডোজই যথেষ্ট? মানিকছড়িতে ভিজিডি’র চাল বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশ নিরাপদ কৌশল লকডাউন: স্বাস্থ্য অধিদফতর ৩৬ লাখ পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেবেন প্রধানমন্ত্রী
কোটা সংস্কার আন্দোলন যৌক্তিক: ঢাবি ভিসি

কোটা সংস্কার আন্দোলন যৌক্তিক: ঢাবি ভিসি

সরকারি চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবি ‘যৌক্তিক’ বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান। বুধবার বেলা ১২টার দিকে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “কোটাবিরোধী’ শব্দ ব্যবহার করা যৌক্তিক নয়। তবে কোটা সংস্কারের দাবি যৌক্তিক। আমি কোটা সংস্কারের এই যৌক্তিক দাবি সমর্থন করি এবং সরকারের প্রতি বিষয়টি বিবেচনার দাবি জানাই।’

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতিও কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে। বুধবার এক বিবৃতিতে সরকারের প্রতি দ্রুত কোটা সংস্কার বিষয়ে সুনির্দিষ্ট ঘোষণা দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।
দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কারের দাবিতে আজ বুধবার (১১ এপ্রিল) ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন, সড়ক অবরোধ, মিছিল ও বিক্ষোভ করছেন। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়েছেন।

চলমান কোটা সংস্কার আন্দোলন প্রসঙ্গে শাহাজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, ‘দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে মেধাবীদের খুব বেশি প্রয়োজন। মেধাবীরা সামনে এগিয়ে আসলে আমাদের দেশ আরও এগিয়ে যাবে। তাই মেধার যথাযথ মূল্যায়নে কোটা সংস্কার প্রয়োজন। ’ মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম গত সোমবার আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও চায়, কোটা সংস্কার হোক। সেই জায়গা থেকে আমরা তোমাদের আন্দোলনে সংহতি জানাই।’

প্রসঙ্গত, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শিক্ষার্থীরা সরকারি চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে কোটা ১০ শতাংশে নামিয়ে আনাসহ পাঁচ দফা দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। গত রবিবার (৮ এপ্রিল) থেকে আন্দোলন আরও বেগবান হয়েছে। এদিন শাহবাগে অবস্থানরত আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশ হামলা চালালে নতুন করে সারা দেশে শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। কোটা সংস্কারের বিষয়টি বিবেচনার জন্য সরকার আগামী ৭ মে পর্যন্ত সময় চেয়েছে। তবে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট ঘোষণার দাবিতে রাস্তায় নেমেছেন আন্দোলনকারীরা। তাদের অন্য দাবিগুলো হলো-কোটার শূন্য পদগুলোতে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ, চাকরি পরীক্ষায় কোটা সুবিধা একবারের বেশি নয়, কোটায় বিশেষ নিয়োগ বন্ধ এবং চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা অভিন্ন করতে হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT