কেন্দ্রে নিবন্ধন আপাতত বন্ধ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী - CTG Journal কেন্দ্রে নিবন্ধন আপাতত বন্ধ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী - CTG Journal

রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

        English
কেন্দ্রে নিবন্ধন আপাতত বন্ধ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

কেন্দ্রে নিবন্ধন আপাতত বন্ধ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

কেন্দ্রে গিয়ে নিবন্ধন করে টিকা নেওয়ার সুবিধা থাকছে না। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, এখন থেকে যারা নিবন্ধন করে আসবেন, শুধু তাদেরই টিকা দেওয়া হবে। কেন্দ্রে আর নিবন্ধন হবে না। বৃহস্পতিবার ( ১১ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতর আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘নিবন্ধন না করে অনেকে টিকা নিতে আসছেন। এতে বিভিন্ন কেন্দ্রে অতিরিক্ত ভিড় তৈরি হচ্ছে। এখন থেকে যারা নিবন্ধন করে আসবেন, শুধু তাদেরই টিকা দেওয়া হবে। ভবিষ্যতে যদি টিকাদান কেন্দ্রে নিবন্ধনের প্রয়োজন পড়ে তখন আবারও জানানো হবে।’

জাহিদ মালেক জানান, এ পর্যন্ত ১০ লাখের বেশি মানুষ টিকা নেওয়ার জন্য নিবন্ধন করেছেন। এরমধ্যে তিন লাখের বেশি মানুষ  টিকা নিয়েছেন। তিনি বলেন,‘টিকাদান কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চালাতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা চাই, সুষ্ঠুভাবে ভ্যাকসিন নেওয়া হোক। আমরা বিভিন্ন রকমের জায়গা তৈরি করে দিয়েছি।  সুন্দর পরিবেশ তৈরি করেছি। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, যারা অস্পষ্ট রেজিস্ট্রেশন করেছেন, তাদের সংখ্যাই বেশি। আর যারা রেজিস্ট্রেশন করেছেন, তারাই ঢুকতে পারছেন না। বয়স্ক লোকেরা কেন্দ্রে যাচ্ছেন, তাদের কষ্ট হচ্ছে। যারা ভ্যাকসিন দিচ্ছেন— ডাক্তার ও নার্স তাদেরও কষ্ট হচ্ছে। আমরা এই পরিস্থিতি চলতে দিতে চাই না।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘রেজিস্ট্রেশন যেহেতু অনেক সফলভাবে হচ্ছে, ১০ লাখের বেশি হয়ে গেছে। এ কারণে আমরা এখন অস্পষ্ট রেজিস্ট্রেশন আর করবো না।’

মন্ত্রী জানান,এর আগে দেশজুড়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা দেওয়ার জন্য গ্রামাঞ্চলের এবং যাদের স্মার্ট ফোনের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশনের সুবিধা নেই, তাদের জন্য কাছের টিকাদান কেন্দ্রে গিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নেওয়ার সুযোগ ছিল।

তিনি বলেন, ‘এখন থেকে যারা নিবন্ধন করে আসবেন, শুধু তাদেরই টিকা দেওয়া হবে। ভবিষ্যতে যদি টিকাদান কেন্দ্রে নিবন্ধনের প্রয়োজন পড়ে, তখন আবারও জানানো হবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ‘নভেল করোনাভাইরাসের টিকা নিয়ে অনেক সমালোচনা থাকলেও এখন তা আর নেই। মানুষের টিকা নেওয়ার আগ্রহ অনেক বেড়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি এখন দেখছি যে, সব জায়গায় আগে ভিড় কম ছিল। এখন অনেক ভিড়। অনেক লোক যাচ্ছে, মানুষের কনফিডেন্স বাড়ছে। ভ্যাকসিন নিয়েও নানা কথাবার্তা ছিল। মানুষের সব কথাবার্তা ভুল প্রমাণিত করে, তোয়াক্কা না করে, এখন সবাই ভ্যাকসিনের ওপরে আস্থা নিয়ে ভ্যাকসিন নিতে যাচ্ছেন।’

পরিবার পরিকল্পনা বিভাগীয় মাঠ কার্যক্রম পেপারলেস ঘোষণা অনুষ্ঠানে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. আলী নূর, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক সাহান আরা বানু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT