কাদের মির্জা পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত! - CTG Journal কাদের মির্জা পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত! - CTG Journal

বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ০১:০৬ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৫ কোটি ৫৮ লাখ ছাড়িয়েছে দৈনিক শনাক্ত ও মৃত্যুর নতুন রেকর্ড ভারতের কালবৈশাখী আসতে পারে সন্ধ্যায় যে যেখানে আছেন সেখানেই ঈদ করুন: প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে বিদেশ নেওয়ার আবেদন এখন আইন মন্ত্রণালয়ে সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ করেই এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা খালেদা জিয়ার আবেদন ইতিবাচকভাবে দেখছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিক সত্যজিৎ এর উপর হামলা: জড়িতদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবীতে উত্তাল খাগড়াছড়ি রাউজানে খাবার হোটেলে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য, জরিমানা এতিমদের সম্মানে সানরাইজ ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া রাউজানে ৪০ জন কৃষক পেল ২০ লক্ষ টাকার কৃষি ঝণ রাউজানে মসজিদ পরিচালনা কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্ব: পলাতক আসামি গ্রেফতার
কাদের মির্জা পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত!

কাদের মির্জা পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত!

পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত হওয়ার অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোটভাই বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) দুপুর ১২টায় অনুসারী স্বপন মাহমুদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসে তিনি পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত হওয়ার অভিযোগ করেন।

ফেসবুক লাইভে কাদের মির্জা অভিযোগ করেন, ‘সন্ত্রাসী পুলিশেরা আমার সাত জন কর্মী, বিশেষ করে মিকন ও আরও একজনকে গ্রেফতার করে নির্যাতন করে। সকালের দিকে খবর পেয়ে আমি তাদেরকে দেখতে গিয়েছি। তারা শোয়া থেকে উঠতে পারছে না। তাদের দেখে ফেরার পথে, আমাদের ওপর আক্রমণ করেছেন অ্যাডিশনাল এসপি। আমার গায়ে হাত দিয়েছেন। আমি দশ বার বলেছি আমি ডিএস মর্যাদার, তুমি আমার গায়ের ওপর হাত দাও কেন? সে তারপরেও আমার গায়ের ওপর হাত দিয়েছে। ওসি আমার সহকারী সাজুর গায়ে হাত দিয়েছে। পুলিশেরা গায়ের ওপর হাত দিয়েছে। তাকে মারধর করেছে। তার মোবাইলফোন কেড়ে নেওয়া হয়েছে।’

কাদের মির্জা আরও অভিযোগ করেন, ‘লাঞ্ছিত করার পর আমি চলে আসতে চাইলে অ্যাডিশনাল এসপি, ওসিসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা আমাকে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করেছে। আমি কোনও দিন থানায় যাইনি। আজকে একদিন গিয়েছি। এদের অত্যাচারের কথাটা দেখে আসার জন্য এবং শোনার জন্য। আজকে আমাদের ওপর এ তাণ্ডব চালিয়েছে। গত তিনটা মাস আমার ওপর তাণ্ডব চলছে।’

তবে কাদের মির্জার এমন অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলেছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বসুরহাট থানার এক পুলিশ কর্মকর্তা। তিনি বলেন, কাদের মির্জা ওপর মহলের সহানুভূতি আদায়ে এ ধরনের মিথ্যা অভিযোগকে কৌশল হিসেবে ব্যবহার করছেন।

নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামীম আহমেদ কাদের মির্জার অভিযোগ ভিত্তিহীন দাবি করে পুরোপুরি নাকচ করে দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, কাদের মির্জা থানায় গিয়ে সরাসরি থানার হাজতের সামনে চলে যান। আমি শুধু তাকে বলেছি, আপনি ওসির রুমে আসেন। এছাড়া আর কোনও কথা তার সঙ্গে হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT