করোনা রোগীদের চিকিৎসায় চসিক আইসোলেশন সেন্টারের যাত্রা শুরু - CTG Journal করোনা রোগীদের চিকিৎসায় চসিক আইসোলেশন সেন্টারের যাত্রা শুরু - CTG Journal

সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর টার্গেটে আরও দুই ডজন হেফাজত নেতা আবারও চিকিৎসক দম্পতিকে জরিমানা ভার্চুয়াল কোর্টে জামিন পেয়ে কারামুক্ত ৯ হাজার আসামি লকডাউনের পঞ্চম দিনে ১০ ম্যাজিস্ট্রেটের ২৪ মামলা ওমানের সড়কে প্রাণ গেলো তিন প্রবাসীর, তারা রাঙ্গুনিয়ার বাসিন্দা একই কেন্দ্রে টিকা না নিলে সার্টিফিকেট মিলবে না মামুনুলের বিরুদ্ধে অর্ধশত মামলা, সহসাই মিলছে না মুক্তি ফিরতি ফ্লাইটের টিকিট পেতে সৌদি প্রবাসীদের বিশৃঙ্খলা সেরে ওঠা কোভিড রোগীদের জন্য কি ভ্যাকসিনের এক ডোজই যথেষ্ট? মানিকছড়িতে ভিজিডি’র চাল বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশ নিরাপদ কৌশল লকডাউন: স্বাস্থ্য অধিদফতর ৩৬ লাখ পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেবেন প্রধানমন্ত্রী
করোনা রোগীদের চিকিৎসায় চসিক আইসোলেশন সেন্টারের যাত্রা শুরু

করোনা রোগীদের চিকিৎসায় চসিক আইসোলেশন সেন্টারের যাত্রা শুরু

চসিকের লাইব্রেরি ভবনের দুইটি ফ্লোর নিয়ে গড়ে তোলা আইসোলেশন সেন্টারটি মঙ্গলবার উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় রোগীদের চিকিৎসায় ৫০ শয্যার একটি আইসোলেশন সেন্টার চালু করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক)।

চসিকের লাইব্রেরি ভবনের দুইটি ফ্লোর নিয়ে গড়ে তোলা আইসোলেশন সেন্টারটি মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

আইসোলেশন সেন্টারের সমন্বয়কারী চসিক কর্মকর্তা ডা. মো. মুজিবুল আলম চৌধুরী জানান, ৫০ শয্যার এই আইসোলেশন সেন্টারে ৩৫ জন পুরুষ ও ১৫ জন নারীকে চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা থাকছে। এ লক্ষ্যে আইসোলেশন সেন্টারে ১১ জন চিকিৎসক, ১২ জন প্যারামেডিকস, ৩ জন ফার্মাসিস্ট, ৮ জন ওয়ার্ডবয়, ২ জন স্টোর কিপার, ৩ জন ওয়ার্ড মাস্টার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। 

১০ জন চিকিৎসক রোস্টার অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টা দায়িত্ব পালন করবেন। আগামী দু-এক দিনের মধ্যেই এ সেন্টারে রোগী ভর্তি  শুরু করা হবে। 

ডা. মুজিব বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে চসিকের এই আইসোলেশন সেন্টারে চিকিৎসা নিতে আসা করোনা রোগীদের কোনো ধরনের টাকা দিতে হবে না। হাসপাতালের পক্ষ থেকেই বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা, ওষুধপত্র-অক্সিজেন সাপোর্ট, খাবারসহ সব ধরনের প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সেবা নিশ্চিত করা হবে। রোগী পরিবহন ও স্থানান্তরের জন্য থাকবে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস। সেবা নিতে আসা রোগীদের করোনাসহ অন্যান্য টেস্টের নমুনা সংগ্রহ করে নির্দিষ্ট পরীক্ষাগারে পৌঁছে দেবেন চসিকের কর্মীরা। প্রয়োজনে জটিল রোগীদের দ্রুত সরকারি হাসপাতালে রেফার করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT