করোনার প্রভাবে দাম নিয়ে শঙ্কায় চাষীরা - CTG Journal করোনার প্রভাবে দাম নিয়ে শঙ্কায় চাষীরা - CTG Journal

সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৩৮ অপরাহ্ন

        English
শিরোনাম :
নতুন বছরে নতুন তরকারী হিসাবে পাহাড়ে কাঠাল খুবই প্রিয় সব্জি লিখিত পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে যা জানালো বার কাউন্সিল ঈদের আগে লকডাউন শিথিল হবে মানিকছড়ি ভিজিডি’র খাদ্যশস্য সরবরাহে বিধিভঙ্গ করায় খাদ্য নিয়ন্ত্রক ও ওসিএলএসডি’কে শোকজ লকডাউনে মানিকছড়িতে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন, জরিমানা অব্যাহত চট্টগ্রামে দোকানপাট-শপিংমল খুলে দেওয়ার দাবি ব্যবসায়ীদের না.গঞ্জ মহানগর জামায়াতের আমিরসহ গ্রেফতার ৩ লকডাউন বাড়ানো হলো যে কারণে একদিনে প্রাণ গেল ১১২ জনের আগ্রাবাদ বিদ্যুৎ ভবনে ৬ চাঁদাবাজ আটক নাইক্ষ্যংছড়িতে রাষ্ট্রবিরোধী প্রচারনার অভিযোগে দুই যুবক আটক বান্দরবানে মারমা লিবারেশন পার্টির ২ সদস্য আটক, অস্ত্র ও কাতুর্জ উদ্ধার
করোনার প্রভাবে দাম নিয়ে শঙ্কায় চাষীরা

করোনার প্রভাবে দাম নিয়ে শঙ্কায় চাষীরা

মো: আক্তার হোসেন, দীঘিনালা: খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় অনুকূল আবহাওয়া ও মাটির ভূ-প্রাকৃতিক গঠন চাষের উপযোগী হওয়ায় সম্প্রতি খাগড়াছিতে ব্যাপক হাড়ে বাড়ছে রেড লেডি জাঁতের পেঁপের চাষ। তার প্রভাব দীঘিনালায় পড়েছে অন্যনো চাষের তুলনায় কষ্ট কম এবং লাভজনজ হওয়ায়। উপজেলার পাহাড়ে ও ফসলি জমিতে ব্যাপক হাড়ে গড়ে উঠছে পেঁপের চাষ। সরেজমিনে দেখা যায় উপজেলার ভৈরফায় হয়েছে রেড লেডির চাষ, ফলন ও হয়েছে বাম্পার ।

উপজেলার ১ নং মেরুং ইউনিয়নের ভৈরফায়  রেড লেডি চাষী কৃপাময় চাকমা বলেন  ৯ মাস আগে এক একর (১০০শতাংশ) জমিতে ৬৫০ টির ও বেশি রোপন করেছি পেঁপের চারা । গাছ গুলো বয়স হয়েছে ৯ মাস  জানুয়ারী থেকে মার্চ পর্যন্ত পেঁপে তুলে প্রায় ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার বিক্রয় করেছি। একটি গাছে পেঁপে আছে ১৫ থেকে ২৫ টি, বর্তমানে আরো প্রায় ২ লক্ষ টাকার পেঁপে বিক্রয় করা যাবে। তবে করোনা ভাইরাসের কারনে লকডাউন করা হয়েছে সারাদেশে তাই। পূর্বের মতো দাম পাচ্ছি না ।তারা পূর্বে বিক্রয় করতেন ৫০ টাকা কেজি তবে করোনার কারনে চাষীদের কাছে ফল সংগ্রহ করতে আসেনা ব্যবসায়ীরা।  যারা আসে তারা দাম নির্ধারন করেন অর্ধেক , প্রতি কেজি ২০ থেকে ২৫ টাকা। কৃপাময় চাকমা বলেন,। খরচ হয়েছে প্রায় ১ লাখ টাকা। এখন ফলন পাচ্ছি তবে বিক্রয় ভাল না হলে লোকসানে পড়তে হবে।

কৃপাময় চাকমার সাফল্যে রেড লেডি জাতের পেঁপে চাষে আগ্রহী হয়েছেন একই এলাকার জনাতন চাকমা, কালাইয়া চাকমাসহ বেশ কয়েকজন। চাষীরা জানান, প্রতি ২ গ্রাম বীজের দাম ৭শ টাকা। এছাড়া এটি বেশ ব্যয় বহুল চাষাবাদ। সরকারিভাবে প্রণোদনা পেলে রেড লেডি চাষে কৃষকরা আরো আগ্রহী হত।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ সূত্রে জানা যায়, রেড লেডি জাতের পেঁপে অত্যন্ত সুস্বাদু। চারা রোপণের ৭ থেকে ৯ মাসের মধ্যে ফল পাওয়া যায়। এক একটি পেঁপের গড় ওজন প্রায় দেড় থেকে দুই কেজি।

দীঘিনালা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ওঙ্কার বিশ্বাস বলেন, পুষ্টি চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি রেড লেডি চাষে স্বাবলম্বী হচ্ছে কৃষকরা। দেশীয় পেঁপের তুলনায় এর উৎপাদন বেশি। ফলে কৃষকদের মধ্যে আগ্রহ বাড়ছে। প্রতি বছর ২ হেক্টর করে রেড লেডি জাতের পেঁপের আবাদ বাড়ছে বলে জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT