‘কঠোর ব্যবস্থা না নিলে দেশ থেকে আইনটাই চলে যাবে’ - CTG Journal ‘কঠোর ব্যবস্থা না নিলে দেশ থেকে আইনটাই চলে যাবে’ - CTG Journal

সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর টার্গেটে আরও দুই ডজন হেফাজত নেতা আবারও চিকিৎসক দম্পতিকে জরিমানা ভার্চুয়াল কোর্টে জামিন পেয়ে কারামুক্ত ৯ হাজার আসামি লকডাউনের পঞ্চম দিনে ১০ ম্যাজিস্ট্রেটের ২৪ মামলা ওমানের সড়কে প্রাণ গেলো তিন প্রবাসীর, তারা রাঙ্গুনিয়ার বাসিন্দা একই কেন্দ্রে টিকা না নিলে সার্টিফিকেট মিলবে না মামুনুলের বিরুদ্ধে অর্ধশত মামলা, সহসাই মিলছে না মুক্তি ফিরতি ফ্লাইটের টিকিট পেতে সৌদি প্রবাসীদের বিশৃঙ্খলা সেরে ওঠা কোভিড রোগীদের জন্য কি ভ্যাকসিনের এক ডোজই যথেষ্ট? মানিকছড়িতে ভিজিডি’র চাল বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশ নিরাপদ কৌশল লকডাউন: স্বাস্থ্য অধিদফতর ৩৬ লাখ পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেবেন প্রধানমন্ত্রী
‘কঠোর ব্যবস্থা না নিলে দেশ থেকে আইনটাই চলে যাবে’

‘কঠোর ব্যবস্থা না নিলে দেশ থেকে আইনটাই চলে যাবে’

সাম্প্রতিক সময়ে দেশজুড়ে সৃষ্ট বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি প্রসঙ্গে অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন বলেছেন,  তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা না নেওয়া হলে দেশ থেকে তো আইনটাই চলে যাবে।

রবিবার (৪ এপ্রিল) সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা এএম আমিন উদ্দিন বলেন, ‘একজন বিদেশি অতিথি (ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি) এর আগেও বাংলাদেশে এসেছিলেন। কিন্তু তখন তারা চুপ ছিলেন। অথচ এবার তিনি  বাংলাদেশে আসায় তাদের (আন্দোলনকারীদের) ঘুম ভেঙেছে। তাই ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যে কাজটি হয়েছে, তা কি আমরা সমর্থন করতে পারি?’

বঙ্গবন্ধু আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার বিষয়ে যে কথা বলেছেন, বর্তমান সময়ে সেই রূপ আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে কিনা, জানতে চাইলে রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা বলেন, ‘আমাদের দুর্ভাগ্য হচ্ছে— আজকে একটা গোষ্ঠী মসজিদকে ব্যবহার করে বিশৃঙ্খল অবস্থার সৃষ্টি করছে। এটা কি আমরা সমর্থন করতে পারি? আইনের শাসন তো সবাইকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। যারা মসজিদকে ব্যবহার করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চায়, তাদেরকে আমরা কী বলবো? একজন বিদেশি অতিথি আসবেন, তিনি কিন্তু ২০১৫ সালেও এসেছিলেন। তখন কোনও কথা হয়নি। উনি (ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি) আসলেন, আর হঠাৎ করে ঘুম ভাঙলো, আমাদের কিছু করতে হবে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যে কাজটা হয়েছে, এটা কি আমরা সমর্থন করতে পারি? তাহলে আইনের শাসনটা কীভাবে আসবে? এখন তাদের বিরুদ্ধে যদি কঠোর ব্যবস্থা না নেওয়া হয়, দেশ থেকে তো আইনটাই চলে যাবে। তারা দেশটাকেই অস্বীকার করছে। এজন্য আপনাকে সবকিছু মিলিয়ে দেখতে হবে।’

করোনার মধ্যে আদালত কীভাবে চলতে পারে, সে বিষয়ে জানতে চাইলে আমিন উদ্দিন বলেন, ‘আমি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নয়, বারের একজন সদস্য হিসেবে বলছি— এই সময়টা যেহেতু লকডাউনের সময়, যেহেতু যানবাহনের ওপরও নিষেধাজ্ঞা আছে, সেসব কারণ বিবেচনা করে ভার্চুয়ালি কোর্টের ব্যবস্থা করলে সবাই উপকৃত হবেন।’

এর আগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বিশেষ স্মারক গ্রন্থ ‘ইতিহাসের মহানায়ক’ এর মোড়ক উন্মোচন করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন— সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান, সহসম্পাদক ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ, সদস্য হুমায়ুন কবিরসহ আইনজীবী নেতারা।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT