এক-এগারো: আ.লীগের বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি করতে চায় বিএনপি - CTG Journal এক-এগারো: আ.লীগের বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি করতে চায় বিএনপি - CTG Journal

রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
এক রাতে মিললো ১২ কোটি টাকার ইয়াবা ‘ওয়াজ-মাহফিলের নামে জাতিকে ঈমানহারা করছেন তাহেরী’ মানিকছড়িতে দুগ্ধগাভী পেলেন অভিভাবকহীন শিশু-কিশোর পরিবার নিবন্ধন ৪৯ লাখ, টিকা নিয়েছেন ৩৬ লাখের বেশি মানুষ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বাংলাদেশের উত্তরণে ভারত ‘খুশি’ এক বা দুই ডোজ যা-ই হোক, সহজলভ্য ভ্যাকসিন গ্রহণের পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের ফেনীতে একটি ভবনে বিস্ফোরণে মা ও দুই মেয়ে দগ্ধ বেরোবি’র বিশেষ উন্নয়ন প্রকল্পে প্রভাবমুক্ত ও নিরপেক্ষ তদন্ত হয়েছে: ইউজিসি রোজার আগেই ‘মাঠে নামবে’ গণফোরাম করোনাভাইরাস: দেশে আরও ১০ মৃত্যু, শনাক্ত ৫৪০ সংশোধন নয়, ২৬ মার্চের আগেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করুন: জাফরুল্লাহ চৌধুরী চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত আরও ৯২ জন
এক-এগারো: আ.লীগের বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি করতে চায় বিএনপি

এক-এগারো: আ.লীগের বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি করতে চায় বিএনপি

২০০৭ সালের এক-এগারো উপলক্ষে সোমবার (১১ জানুয়ারি) ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি করতে সভা করবে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘২০০৭ সালের জানুয়ারি মাসের ১১ তারিখ সেই ভয়ংকর কালো দিনকে স্মরণ করিয়ে দেয়। এই ষড়যন্ত্রের দিনে আওয়ামী লীগের কলঙ্কিত রাজনীতির বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টির লক্ষ্যে ১১ জানুয়ারি সোমবার বেলা ৩টায় কেন্দ্রীয় ভার্চুয়াল আলোচনা সভা করবে বিএনপি।’

রবিবার (১০ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় রাজধানীর গুলশানের চেয়ারপারসন কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল। শনিবার (৯ জানুয়ারি) বিকালে অনুষ্ঠিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানাতে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারি বাংলাদেশের সংবিধান লঙ্ঘন করে গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়। বাংলাদেশকে বিরাজনীতিকরণের লক্ষ্যে সংবিধানসম্মত তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে উৎখাত করে বেআইনি সেনাসমর্থিত সরকার গঠন করা হয়। দেশের জনপ্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়াসহ বহুসংখ্যক রাজনৈতিক নেতাকে মামলা দিয়ে কারারুদ্ধ করা হয়। মূল লক্ষ্য ছিল দেশপ্রেমিক জাতীয়তাবাদী শক্তিকে র্নিমূল করা।’

তিনি বলেন, ‘১/১১ এর বেআইনি সরকার পরিকল্পিতভাবে রাষ্ট্রের গণতান্ত্রিক কাঠামোকে ভেঙে দিয়ে ফ্যাসিবাদী আওয়ামী লীগের হাতে ক্ষমতা প্রদানের নীল নকশা বাস্তবায়ন করে। আজকের অনির্বাচিত আওয়ামী লীগ সরকার তারই ধারাবাহিকতায় এ দেশের মানুষের আকাঙ্ক্ষিত গণতন্ত্রকে হত্যা করে একদলীয় ফ্যাসিবাদী শাসন জনগণের ওপর চাপিয়ে দিচ্ছে। গণতান্ত্রিক সব প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল জানান, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়ার প্রতিবাদে আগামী ১৩ জানুয়ারি বুধবার সারাদেশে জেলা ও মহানগর পর্যায়ে প্রতিবাদ সমাবেশ অথবা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি। এছাড়া আগামী ১৯ জানুয়ারি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৮৫তম জন্মদিন পালন করবে দলটি।

করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে স্থায়ী কমিটির সিদ্ধান্ত তুলে ধরে ফখরুল বলেন, ‘ভ্যাকসিনআমদানিকরণে ভারতীয় হাইকমিশনার, পররাষ্ট্র সচিবের বক্তব্য বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছে। ভ্যাকসিনপ্রাপ্তিকে অনিশ্চয়তার দিকে নিয়ে গেছে। এরপরও সরকারের মন্ত্রীদের বক্তব্য  জনগণের কাছে প্রতারণা ছাড়া কিছুই নয়।’

তারেক রহমানের সভাপতিত্বে শনিবার অনুষ্ঠিত স্থায়ী কমিটির সভায় আরও অংশগ্রহণ করেন, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল জানান, বৈঠকে স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের সুস্থতা কামনা করা হয়েছে ও দেশবাসীর কাছে তার জন্য দোয়া করার আহ্বান জানিয়েছে স্থায়ী কমিটি।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT