ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ - CTG Journal ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ - CTG Journal

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১০:০৩ পূর্বাহ্ন

        English
শিরোনাম :
দিনে সাইকেল চুরি, রাতে ইয়াবা বিক্রি সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ ১৯ দিনে জামিনে মুক্ত ৩৩ হাজার কারাবন্দি ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে? পানছড়িতে ভেস্তে যাচ্ছে এলজিইডি’র ১ কোটি ৬২ লাখ টাকার তীর রক্ষা প্রকল্প: মরে যাচ্ছে ঘাস, তীরে ধরেছে ফাটল খালেদা জিয়ার বিদেশযাত্রা নিয়ে নতুন হিসাব-নিকাশ চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় কাপ্তাইয়ে বিএনপির দোয়া ও ইফতার মাহফিল চৈতন্য গলির জুয়ার আস্তানায় পুলিশের হানা, আটক ১৪ সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ রাউজানে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার বাংলাদেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা
ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলার পাতাছড়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মহিউদ্দিনের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ওই নারী থানায় গিয়ে অভিযোগ দিলেও মামলা নেয়নি পুলিশ।  স্থানীয়ভাবে বিচার চেয়েও পাননি তিনি। উল্টো নিরাপত্তাহীনতায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে গৃহবধূ। 

ওই নারীর বাবা জানান, তার মেয়ের বিয়ে হয়েছে পাঁচ মাস আগে। মেয়েকে ফোন করলে তাকে তেমন কথা বলতে দিতো না।  সন্দেহ হওয়ায় তিনি রামগড় এসে  জানতে পারেন তার মেয়েকে  শ্বশুর-শাশুড়ি ও তার স্বামী মিলে মহিউদ্দিন মেম্বারের হাতে তুলে দেয়। মহিউদ্দিন একাধিকবার তার মেয়কে ধর্ষণ করেছে। তার মেয়েকে গত পাঁচ মাসে চার বার ধর্ষণ করেছে  ইউপি সদস্য মহিউদ্দিন। লজ্জায় আত্মহত্যা করতে গিয়েছে তার মেয়ে। 

তিনি আরও বলেন, রামগড় থানায় মামলা করতে গেছেন। কিন্তু ইউপি সদস্যের নাম শুনে  রামগড়  থানার ওসি তদন্ত মনির  হোসেন মামলা  না নিয়ে তাদেরকে গত শনিবার (৬ই মার্চ) দিনব্যাপী থানায় বসিয়ে রেখে হয়রানি করেছেন। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় তদন্তের অজুহাতে  অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের বাড়িতে গিয়ে দুই ঘণ্টার বৈঠক শেষে  ফিরে যায় পুলিশ। এরপর থেকে ইউপি সদস্যের হুমকিতে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ওই নারী ও তার বাবা।

রামগড় থানার ওসি তদন্ত মনির হোসেন বলেন, মামলা দিলেই নিতে হবে এমন কোথাও লেখা নেই। এ অভিযোগে সন্দেহ আছে। যাচাই করে দেখবেন তারপর মামলা নেওয়া যায় কিনা খতিয়ে দেখবেন ।

অভিযুক্ত  ইউপি সদস্য মহিউদ্দীন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, একটি কুচক্রিমহল তার বিবুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে। তিনি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত নন।

Please Share This Post in Your Social Media

Powered by : Oline IT